• প্রেমিকার বাড়ির কাছে যুবকের দেহ 
    আনন্দবাজার, 22 November 2020
  • প্রেমিকার বাপের বাড়ি এলাকায় গাছে যুবকের ঝুলন্ত দেহ উদ্ধারে শোরগোল পড়ল। শনিবার সবংয়ের ভেমুয়া কিশোরপুরের ঝিলপাড় থেকে মেলে রাজু দুয়া নামে ওই যুবকের দেহ। তাঁর বাড়ি পিংলার নাড়াথায়।

    শনিবার রাজুর বাড়ি থেকে প্রায় পাঁচ কিলোমিটার দূরে কিশোরপুরের ঝিলপাড়ে পেয়ারা গাছে টি-শার্টের ফাঁসে তাঁর দেহটি ঝুলতে দেখা যায়। পৌঁছয় পুলিশ। স্থানীয়দের দাবি, ঘটনাটি বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্কের পরিণতি। ওই যুবকের মামাবাড়ি ভেমুয়ায়। সেই সূত্রেই তাঁর পরিচয় হয়েছিল স্থানীয় চণ্ডীমন্দির সংলগ্ন এক যুবতীর সঙ্গে। বছর কয়েক আগে বিয়ে হয় রাজুর। তার পরে ওই যুবতীরও বিয়ে হয় রাজুর গ্রাম নারাথায়।

    স্বামীর বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্কের আঁচ পেয়ে চার বছরের মেয়েকে নিয়ে বাড়ি ছেড়ে চলে যান রাজুর স্ত্রী। সেই সুযোগে বছর দু’য়েক আগে রাজুও প্রেমিকাকে নিয়ে ভিন্‌ রাজ্যে পালায়। লকডাউনে ফিরে আসে তারা। তবে রাজু থাকত নিজের বাড়িতে। আর বাপের বাড়িতেই থাকতেন যুবতী। এ নিয়ে অশান্তিও হয়। রোজগারহারা রাজুর সঙ্গে যুবতীর সম্পর্কে জটিলতা বাড়ছিল। রাজুর ভাই সঞ্জু দুয়া অবশ্য বলেন, “আমরা কিছুই জানি না।” তবে সম্পর্কের জটিলতায় ওই যুবক খুন হয়েছে বলে মনে করছে স্থানীয়রা। যুবতীর বাপের বাড়ির লোককে সন্দেহ তাদের। ভেমুয়া এলাকার বাসিন্দা পঞ্চায়েত সমিতির কর্মাধ্যক্ষ তরুণ মিশ্র বলেন, “প্রেম ঘটিত কারণ রয়েছে বলেই জানতে পারছি। পুলিশ তদন্ত করছে।”

  • Link to News (আনন্দবাজার)