• স্মার্টফোনের মতো স্মার্ট থেকো, পড়ুয়াদের ১০ হাজার টাকা করে দিয়ে পরামর্শ Mamata-র
    ২৪ ঘন্টা, 22 January 2021
  • নিজস্ব প্রতিবেদন: করোনা পরিস্থিতিতে দ্বাদশ শ্রেণির ছাত্রছাত্রীদের স্মার্ট বা ট্যাব দেওয়ার ঘোষণা করেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Banerjee)। পরে বাজারে জোগান না থাকায় সরাসরি অ্যাকাউন্টে টাকা দেওয়ার কথা জানান। আজ, বৃহস্পতিবার পড়ুয়াদের অ্যাকাউন্টে সরাসরি টাকা পাঠানো শুরু করল রাজ্য সরকার। তার সূচনা করে মুখ্যমন্ত্রী বলেন,'কোভিডের জন্যে পড়াশুনোর অসুবিধা হয়েছে। অনলাইন ও টেলিভিশন চ্যানেলের মাধ্যমে চেষ্টা করেছি। তবে অনেকের ঘরে ট্যাব, স্মার্টফোন নেই। বঞ্চনা দূর করতে ১০ হাজার টাকা করে দেওয়া হল।'

    করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবে সেই মার্চ থেকে বন্ধ রয়েছে স্কুলগুলি। বিকল্প হিসেবে শুরু হয়েছে অনলাইনে পড়াশুনো। সে কথা মাথায় রেখে রাজ্যে দ্বাদশ শ্রেণির ছাত্রছাত্রীদের ট্যাব দেওয়ার ঘোষণা করেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ()।। পরে সিদ্ধান্ত বদলান তিনি। মমতার কথায়,'সাড়ে ৯ লক্ষ ছাত্রছাত্রীকে ট্যাব দেব বলেছিলাম। আমরা দরপত্র ডাকলে বড়জোর এক থেকে দেড় লক্ষ পেতে ট্যাব পেতে পারি। চিনা ট্যাব কিনতে পারব না। ভারত সরকার বারণ করেছে। অফিসারদের নিয়ে সিদ্ধান্ত নিয়েছি, দ্বাদশ শ্রেণির ছাত্রছাত্রীদের অ্যাকাউন্টে ১০ হাজার টাকা দিয়ে দেওয়া হবে।' সেইমতো এ দিন সরাসরি টাকা পাঠাতে শুরু করল রাজ্য সরকার।

    মুখ্যমন্ত্রী (Mamata Banerjee) এ দিন ভার্চুয়াল বৈঠকে বিভিন্ন জেলার ছাত্রছাত্রীদের বার্তা দেন,'একসঙ্গে ৯ লক্ষ ট্যাব পাওয়া যাচ্ছে না। আজ থেকে টাকা অ্যাকাউন্টে জমা পড়ছে। স্মার্টফোন বা ট্যাব কিনে নেবেন। সারা পৃথিবীর অনেক কিছু জানতে পারবেন। আপনাদের পক্ষে কাজে লাগবে। যত্ন করে রাখলে অনেক দিন চলবে। আগামী দিনের জন্য শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন রইল। আমি ছাত্র রাজনীতি থেকে উঠে এসেছি। মাথানত করতে পারি না। ভাঙি তবু মচকাই না।' এর পাশাপাশি মুখ্যমন্ত্রীর উপদেশ,'যত্ন করে রেখো। মনে রাখবে কেউ যাতে চুরি করে নিতে না পারে। স্মার্টফোন কিন্তু ভাল হয়। খুব স্মার্ট হয়। স্মার্টফোনের মতো স্মার্ট থেকো।'
  • Link to News (২৪ ঘন্টা)