• রেগে শচীনের পোস্টার ছেঁড়েন হুমা কুরেশি! বড় ঝামেলার খবর প্রকাশ্যে আনলেন অভিনেত্রী
    ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস, 18 May 2021
  • তিনি মাস্টার ব্লাস্টার। সর্বকালের অন্যতম শ্রেষ্ঠ ক্রিকেটার। ক্রিকেটের ঈশ্বর উপমাও দেওয়া হয়েছে শচীন রমেশ তেন্ডুলকরকে। কিংবদন্তি সেই ভারতীয় মহাতারকার ছবির পোস্টারই কিনা ছিঁড়ে দিয়েছিলেন বলিউডের অভিনেত্রী হুমা কুরেশি। সম্প্রতি এমন কাণ্ড করার কথা স্বীকার করলেন তিনি নিজেই।

    ক্রিকেটপ্রেমী মাত্রেই শচীনের অন্ধ ভক্ত! আর অন্যান্য ভারতীয়দের মতোই শচীনের খেলায় পাগল ছিলেন হুমা কুরেশির ভাই সাকিব সালিম। বড় হয়ে ক্রিকেটার হওয়ার স্বপ্নও দেখতেন বলি তারকা। সেই কারণে নিজের ঘরের সাঁটা ছিল পেল্লায় পেল্লায় শচীনের পোস্টার, ছবি।

    আর হুমা কুরেশি নাকি ভাই সাকিবের সঙ্গে ঝগড়া হওয়ার পর একবার তাঁর ঘরের শচীনের পোস্টার ছিঁড়ে দিয়েছিলেন। সম্প্রতি ‘ইয়াদো কি বারাত’ নামের এক টক শো-য়ে সঞ্চালক সাজিদ খান এবং রিতেশ দেশমুখকে এই কথা খোলামেলা স্বীকার করেন হুমা। ভাইয়ের সঙ্গে শৈশবের ঝগড়া হওয়ার ঘটনা শেয়ার করে তিনি জানান, “শচীনের খুব বড় ফ্যান সাকিব। ওর রুমে শচীনের বড় বড় পোস্টার ছিল। একবার ওর সঙ্গে ঝগড়া হওয়ার পর রুমের সমস্ত পোস্টার ছিঁড়ে ফেলেছিলাম।”

    এই ঘটনা শেয়ার করার পরেই সঞ্চালক সাজিদ মজা করেই জিজ্ঞাসা করেন, শচীনের পোস্টার ছিঁড়ে দিলে তুমি! হুমার সরল জবাব, “আমিও শচীনকে ভালবাসি।”

    তবে হুমা কুরেশির এই কাণ্ডের বদলা ভাই সাকিব ভালোভাবেই নিয়েছিলেন। সাকিবের মতোই হুমার রুমে ছিল শাহিদ আফ্রিদির পোস্টার ভর্তি। সেই সময়ে ভারতেও মহিলা ক্রিকেট ফলোয়ারদের মধ্যে আফ্রিদির জনপ্রিয়তা ছিল আকাশছোঁয়া। সাকিব বলেন, “আমরা যখন বাচ্চা ছিলাম, সেই সময়ে আফ্রিদি সবেমাত্র পাকিস্তানের জার্সিতে অভিষেক ঘটিয়েছেন। তারপর থেকেই মহিলাদের মধ্যে ওঁর জনপ্রিয়তা ছিল দেখার মত। ওঁর লম্বা লম্বা চুল ছিল। বল করার সময় হাওয়ায় উড়ত। হুমার ঘরে আফ্রিদির ৩-৪টে পোস্টার ছিল। যেগুলো আমি ছিঁড়ে দিই। বদলা হিসাবে।”

    আফ্রিদি এবং শচীন জাতীয় দলের জার্সিতে একে অন্যের বেশ কয়েকবার মুখোমুখি হয়েছেন। শচীন সর্বকালের সেরা হিসাবে নিজেকে প্রমাণ করেছেন পরবর্তীকালে। আর আফ্রিদিও পাকিস্তানের অন্যতম সেরা অলরাউন্ডার হয়ে উঠেছেন।
  • Link to News (ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস)