• একের পর এক দ্বীপ চষে বেড়ালেন সুব্রত, চায়ের আড্ডায় আর্জি বিজেপির
    বর্তমান | ২৮ অক্টোবর ২০২১
  • নিজস্ব প্রতিনিধি, দক্ষিণ ২৪ পরগনা: গোসাবা উপনির্বাচনের প্রচারের শেষদিন ছিল বুধবার। আর শেষ বেলায় দাপিয়ে বেড়াল তৃণমূল কংগ্রেস। পিছিয়ে ছিল না বিজেপি। অন্যদিকে, বামেরাও জনসংযোগের উপরই প্রচার সারল। সব মিলিয়ে শেষদিনের প্রচারে সব দলই ঝাঁপিয়ে পড়ল। শেষ পর্যন্ত কার দিকে পাল্লা ভারী হবে তার জন্য ২ নভেম্বর পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হবে সবাইকে।

    এদিন একাধিক জায়গায় সভা করেন তৃণমূল কংগ্রেস প্রার্থী সুব্রত মণ্ডল। সকাল থেকে সন্ধ্যা চষে বেড়ালেন এক দ্বীপ থেকে আরেক দ্বীপে। এমনকী, তাঁর সমর্থনে দলের শীর্ষ নেতারাও উপস্থিত হন এই দ্বীপাঞ্চলে। তার আগে সকালবেলায় অভিনব পদ্ধতিতে নদীবক্ষে প্রচার করেন তৃণমূল প্রার্থী। একাধিক নৌকায় কর্মী-সমর্থকদের নিয়ে বিভিন্ন দ্বীপে যেতে যেতে মানুষের কাছে ভোটের আবেদন করেন তিনি। প্রচারে এভাবেই চমক দিয়েছেন এই প্রার্থী। দলীয় পতাকায় সেই নৌকাগুলিকে মুড়ে  ফেলা হয়। যখনই কোনও দ্বীপের কাছে সেই নৌকা আসছে স্লোগান দেওয়া চলছে পুরোদমে। সাতজেলিয়া, দয়াপুর, বালি-২ অঞ্চলে একটি করে সভার আয়োজন করা হয়। বাকি সব জায়গায় স্থানীয় বিধায়ক থেকে শুরু করে নেতা-কর্মীদের নিয়েই তা অনুষ্ঠিত হয়। তবে বালিদ্বীপের জনসভায় ছিলেন তৃণমূলের রাজ্য সভাপতি সুব্রত বক্সি এবং যুব তৃণমূলের সাধারণ সম্পাদক দেবাংশু ভট্টাচার্য। কোভিড বিধি  উড়িয়ে প্রত্যেকটা জায়গাতেই উপচে পড়া ভিড় দেখা গেল।

    এদিকে মানুষের সমর্থন পেতে শেষদিনে প্রয়াত বিধায়ক জয়ন্ত নস্করের গ্রাম চুনোখালিতে গিয়ে প্রচার সারলেন বিজেপি প্রার্থী পলাশ রানা। এদিন তাঁর সঙ্গে ছিলেন বিজেপি নেতা সায়ন্তন ঘোষ। চায়ের দোকানে বসে আড্ডা দিয়ে মানুষের সঙ্গে কথা বলে প্রচার করলেন বিজেপি প্রার্থী। এছাড়াও বিভিন্ন এলাকায় ঘুরেও বিজেপিকে ভোট দেওয়ার আহ্বান জানান তিনি।
  • Link to this news (বর্তমান)