• পঞ্চানন বর্মা বিশ্ববিদ্যালয়ে ৩টি হস্টেল উদ্বোধন হতে চলেছে আগামী মাসেই
    বর্তমান | ২৫ নভেম্বর ২০২২
  • নিজস্ব প্রতিনিধি, কোচবিহার: কোচবিহারের পঞ্চানন বর্মা বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপনের পর এই প্রথম হস্টেল চালু হচ্ছে। দীর্ঘদিন ধরে হস্টেলের দাবি ছিল। প্রায় চার বছর আগে ক্যাম্পাসে হস্টেল নির্মাণের কাজ শুরু করে উত্তরবঙ্গ উন্নয়ন দপ্তর। ছাত্রদের দু’টি ও ছাত্রীদের একটি হস্টেল নির্মাণ করা হয়েছে। বিভাগীয় মন্ত্রী উদয়ন গুহ জানিয়েছেন, ডিসেম্বরে হস্টেল তিনটি উদ্বোধন করা হবে। তাঁদের দীর্ঘদিনের দাবি মেটায় খুশি ছাত্র সংগঠনও। 

    উত্তরবঙ্গ উন্নয়ন দপ্তর সূত্রে জানা গিয়েছে, তিনটি হস্টেলের জন্য ২২ কোটি ৪০ লক্ষ টাকা খরচ হয়েছে। মোট ৬০০ ছাত্রছাত্রী থাকতে পারবে। দপ্তর হস্টেলগুলি উদ্বোধন করে বিশ্ববিদ্যালয়কে হস্তান্তর করলেই বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ ছাত্রছাত্রীদের সেখানে থাকার যাবতীয় পদ্ধতি শুরু করতে পারবে।  

    উত্তরবঙ্গ উন্নয়নমন্ত্রী বলেন, ডিসেম্বরের তৃতীয় সপ্তাহের মধ্যেই পঞ্চানন বর্মা বিশ্ববিদ্যালয়ের তিনটি হস্টেলের উদ্বোধন করা হবে। হস্টেলগুলি চালু হলে বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রছাত্রীদের সুবিধা হবে। বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য দেবকুমার মুখোপাধ্যায় বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের মূল ক্যাম্পাসে প্রায় দেড় হাজার পড়ুয়া আছে। কিন্তু, এতদিন আমাদের কোনও হস্টেল ছিল না। ছাত্রছাত্রীদের বাইরে বাড়ি ভাড়া করে থাকতে হয়। তাই হস্টেলের চাহিদা রয়েছে। হস্টেলের নির্মাণকাজ শেষ হয়েছে। দ্রুত উদ্বোধন হলে ভালো হয়। আমাদের হাতে হস্টেল এলে তা ব্যবহারের জন্য পড়ুয়াদের থেকে আবেদন গ্রহণ শুরু করব। 

    পঞ্চানন বর্মা বিশ্ববিদ্যালয়ের তৃণমূল ছাত্র পরিষদের ইউনিট সভাপতি তথা কোচবিহার জেলা তৃণমূল ছাত্র পরিষদের সাধারণ সম্পাদক উত্তম ঘোষ বলেন, জেলার ছাত্রছাত্রীদের উচ্চশিক্ষার কথা মাথায় রেখে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় পঞ্চানন বর্মা বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপন করেছিলেন। এবার হস্টেল চালু হচ্ছে। এতে গরিব পড়ুয়ারা বিশেষভাবে উপকৃত হবেন। 

    পঞ্চানন বর্মা বিশ্ববিদ্যালয়ে এডুকেশনে অনার্সের ছাত্র ইমরান হোসেন। তাঁর বাড়ি শীতলকুচি গোলেনাওহাটি গ্রামে। তিনি বলেন, দেড় বছর ধরে এই বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ছি। হস্টেল নেই, তাই পিলখানা বাজারে মাসে দু’হাজার টাকায় বাড়ি ভাড়া করে থাকতে হচ্ছে। হস্টেল চালু হলে আবেদন করব যাতে থাকতে পারি। হস্টেলে থাকলে খরচ অনেকটাই বাঁচবে। 

    ২০১২ সালে পঞ্চানন বর্মা বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপন হয়। সেসময় থেকে কোচবিহার জেলা সহ আশপাশের জেলা থেকেও বহু ছাত্রছাত্রী এখানে পড়তে আসেন। দূরবর্তী এলাকার পড়ুয়াদের থাকার জন্য হস্টেল প্রয়োজন। সেকথা মাথায় রেখে বছর চারেক আগে উত্তরবঙ্গ উন্নয়ন দপ্তর বিশ্ববিদ্যালয়ে তিনটি হস্টেল নির্মাণের কাজ শুরু করে। কিন্তু, কাজ শুরুর পর কোভিড পরিস্থিতির কারণে কিছু সময় নির্মাণকাজ বন্ধ রাখতে হয়েছিল। তারপর বালি, পাথর সহ নির্মাণ সামগ্রী পেতে সময় লাগছিল। সামগ্রিক এসব কারণে নির্মাণ কাজ একসময় গতিও হারিয়েছিল। যদিও পরিবর্তীতে উত্তরবঙ্গ উন্নয়ন দপ্তরের ইঞ্জিনিয়ারদের ধরাবাহিক তত্ত্বাবধানে কাজে গতি আসে। উত্তরবঙ্গ উন্নয়নমন্ত্রী হওয়ার পর উদয়ন গুহ দপ্তরের চলতে থাকা কাজে গতি আনার জন্য অফিসারদের নির্দেশ দেন। তারপর কাজে আরও গতি আসে। চারতলা বিল্ডিংগুলিতে এখন নীল-সাদা রঙের কাজ চলছে।
  • Link to this news (বর্তমান)