• England: কেনের ফিটনেস নিয়ে স্বস্তিতে ইংল্যান্ড শিবির, আমেরিকা ম্যাচ নিয়ে সতর্ক সাউথগেট
    আজকাল | ২৫ নভেম্বর ২০২২
  • মুনাল চট্টোপাধ্যায়, দোহা

    ইরানের বিরুদ্ধে প্রথম ম্যাচে ৬–‌২ গোলে জেতার পরও বাড়তি উচ্ছ্বাসে গা ভাসাতে দেখা যায়নি ইংল্যান্ড কোচ গ্যারেথ সাউথগেটকে।

    বরং ৬ গোল দেওয়ার থেকেও দু’‌গোল হজম করায় অখুশি ভাব সাংবাদিক সম্মেলনে এসে চেপে রাখেননি। ফুটবলার জীবনের পাশাপাশি বড় মঞ্চে কোচ হিসেবে ব্যর্থতা আর অপ্রাপ্তি তাঁকে রোজ কুরে কুরে খায়। তাই আমেরিকা ম্যাচের আগে ফুটবলারদের মধ্যে আত্মতুষ্টি যাতে ভর না করে, সেদিকে সজাগ দৃষ্টি রেখেছেন। সাজঘরে ফুটবলারদের সতর্ক করেছেন, এতটুকু হালকাভাব আনা চলবে না আমেরিকা ম্যাচে। লড়াই কঠিন হবে। কারণ ইরানের থেকে ধারে ভারে অনেক এগিয়ে আমেরিকা। ইতিমধ্যেই চলতি বিশ্বকাপে আর্জেটিনাকে হারিয়ে সৌদি আরব ও জার্মানিকে বধ করে জাপান অঘটন ঘটিয়েছে। সেখানে আমেরিকা হেলাফেলা করার মতো দল নয়। ওয়েলসের সঙ্গে ভাল খেলে ১–‌১ ড্র করেছে। তাই ইংল্যান্ডকে হারানোর ক্ষমতা ওরা রাখে। ইংল্যান্ড গোলকিপার পিকফোর্ড বলেই দিলেন, ‘‌ইউএসএ দলে প্রিমিয়ার লিগে খেলা একাধিক নামী ফুটবলার আছে। বিশেষ করে চেলসি উইঙ্গার পুলিসিচের দুটো পা সমান চলে। ওর ব্যাপারে সতর্ক না থাকলে বিপদ ঘটবে।’‌ সাউথগেট–সহ গোটা ইংল্যান্ড দল তাই আমেরিকা ম্যাচে জয় পেতে মরিয়া কাতার বিশ্বকাপের শেষ ষোলোয় যাওয়া পাকা করতে।

    সাউথগেটের চিন্তা বাড়িয়েছিল হ্যারি কেন ও ম্যাগুইরের চোট। ইরান ম্যাচে গোড়ালিতে চোট পেয়েছিলেন ইংল্যান্ড অধিনায়ক। খোঁড়াতে খোঁড়াতে তাঁকে মাঠ ছাড়তে হয়েছিল ম্যাচ শেষ হওয়ার আগেই। তবে কেনকে ঘিরে দুশ্চিন্তার মেঘ কেটে গেছে। বুধবার দু’‌বার স্ক্যানের পর নিশ্চিত হওয়া গেছে কেনের গোড়ালির চোট গুরুতর নয়। তিনি আমেরিকা ম্যাচে খেলতে পারবেন। সাউথগেটের কথায়, ‘‌একটু উদ্বিগ্ন ছিলাম। তবে স্ক্যান করা আর ফিটনেস টেস্ট নেওয়ার পর জেনেছি, কেনের খেলতে সমস্যা নেই। আলাদা করে প্র‌্যাকটিসও করেছে। চোটটা গোড়ালিতে বড় ক্ষতি করেনি, আঘাতটা লেগেছে পায়ের ওপর দিকে। ইরান ম্যাচে কেন যখন গোড়ালিতে হাত দিয়ে বসে পড়েছিল মাঠে, তখন আমিও মাথায় হাত দিয়ে ফেলেছিলাম। কিন্তু কিছুক্ষণের মধ্যে কেন উঠে দাঁড়িয়ে খেলা শুরু করেছিল। তবে চোট যাতে না বাড়ে তার জন্য ওকে তুলে নিই। আমেরিকা ম্যাচে কেনকে দরকার ছিল।’‌ দেশের জার্সিতে ৭৬ ম্যাচে ৫১ গোল করেছেন কেন। আর দু’‌গোল করলেই ছুঁয়ে ফেলবেন ওয়েন রুনিকে। তবে কেন রেকর্ড নিয়ে ভাবছেন না।

    ভাবনা ছিল ইংল্যান্ডের অন্যতম স্তম্ভ ম্যাগুইরের চোট নিয়েও। ইরান ম্যাচের শেষদিকে তিনি অসুস্থতা বোধ করেন। কনকাশনের মতো হয়েছিল। তবে এখন ঠিক আছেন। 

    অন্যদিকে, ইরান ম্যাচে বিশাল জয় পাওয়া ইংল্যান্ডকে সমীহ করছেন আমেরিকার গোলকিপার ম্যাট টার্নার। তাঁর মতে, বেলিংহাম, সাকা, কেনদের বৈচিত্রপূর্ণ ও ধারালো আক্রমণকে সামাল দিতে ডিফেন্সকে অনেকবেশি জমাট থাকতে হবে।

    ‌‌
  • Link to this news (আজকাল)