• Post Card: এবার ডাক খাম, পোস্ট কার্ড টিকিটে প্রাচীন মাহেশ
    আজকাল | ২৫ নভেম্বর ২০২২
  • মিল্টন সেন, হুগলি: দেশ বিদেশে বাড়বে পরিচিতি।

    ডাক টিকিট, খাম, পোস্ট কার্ডে এবার মাহেশের রথ। শ্রীরামপুরের সুপ্রাচীন মাহেশের রথ হেরিটেজ হয়েছে অনেক আগেই। রাজ্য সরকারের উদ্যোগে জগন্নাথ মন্দির সংলগ্ন এলাকা জুড়ে তৈরি হয়েছে পর্যটন কেন্দ্র। এবার ডাক বিভাগের বিশেষ ডাক ব্যবস্থায় উঠে এল মাহেশ জগন্নাথ মন্দির। পুরীর পরেই ভারতের দ্বিতীয় প্রাচীন রথযাত্রা বলা হয় মাহেশকে। যার সূচনা হয়েছে ১৩৯৬ সালে। বৃহস্পতিবার ভারতীয় ডাকঘরের চিফ পোস্ট মাস্টার জেনারেল ওয়েস্ট বেঙ্গল সার্কেল এই বিশেষ ডাক খাম প্রকাশের ছাড়পত্র দেয়। শ্রীরামপুর ডাকঘরের উদ্যোগে শ্রীরামপুর পুরসভার সহযোগিতায় ডাক খাম প্রকাশের ব্যবস্থা করা হয়।

     শ্রীরামপুর ডাকঘরের সুপারিন্টেন্ডেন্ট তপন চক্রবর্তী জানান, ডাক বিভাগ বিভিন্ন বিষয়, দ্রষ্টব্য স্থানের উপর ডাক টিকিট তৈরি করে। মাহেশের রথ এবং জগন্নাথ মন্দির বহু প্রাচীন। অথচ পশ্চিমবঙ্গের বাইরে সেরকমভাবে এই দ্রষ্টব্য স্থানের পরিচিতি নেই। তাই ডাক বিভাগের উদ্দেশ্য হল দেশ এবং বিদেশে মানুষের কাছে মাহেশকে আরও পরিচিত করে তোলা। অনেকে আছেন যারা ডাক টিকিট সংগ্রহ করেন। তারাও এটা সংগ্রহ করবেন। আবার তার পরিচিতদের মধ্যেও জানাবেন। এভাবেই মানুষের মধ্যে প্রসার ঘটবে।

     মাহেশ জগন্নাথ মন্দিরের সেবাইত পিয়াল অধিকারী জানিয়েছেন, মাহেশ মন্দির, জগন্নাথ দেব ও রথের স্পেশাল কভার পোস্টকার্ড এবং পার্মানেন্ট পিকটোরিয়াল ক্যানসেলেশন স্টাম্প উদ্বোধন হল। এটা খুবই গর্বের। এদিন উদ্বোধনী অনুষ্ঠানকে কেন্দ্র করে মাহেশ মন্দিরে উপস্থিত ছিলেন মাহেশ জগন্নাথ মন্দিরের প্রধান সেবাইত সৌমেন অধিকারী, শ্রীরামপুর পুরসভার চেয়ারম্যান গিরিধারী সাহা, চাঁপদানীর বিধায়ক অরিন্দম গুঁইন প্রমুখ। 
  • Link to this news (আজকাল)