• ?নতুন করে লিখতে হবে দেশের ইতিহাস?, ইতিহাসবিদদের আরজি অমিত শাহর
    প্রতিদিন | ২৫ নভেম্বর ২০২২
  • সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: নতুন করে লিখতে হবে ভারতের ইতিহাস। কারণ যে লিখিত ইতিহাস আমরা জানি, তা অনেক সময়ই সঠিক নয় এবং কোথা কোথাও বিকৃতও। এমনই দাবি করলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ (Amit Shah)। দিল্লিতে অসম সরকারের একটি অনুষ্ঠানে তিনি ইতিহাসবিদদের ডাক দিলেন, নতুন করে দেশের ইতিহাস লেখার জন্য।

    ঠিক কী বলেছেন শাহ' তাঁকে বলতে শোনা গিয়েছে, 'আমি ইতিহাসের একজন ছাত্র। বহুদিন ধরেই শুনে আসছি আমাদের ইতিহাস ঠিকভাবে পরিবেশন করা হয়নি। হয়তো সেটা সত্য়ি কথাই। কিন্তু এবার আমাদের সেটা সংশোধন করতে হবে।' সেই সঙ্গে তাঁর আরজি, 'উপস্থিত সমস্ত পড়ুয়া ও বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপককে বলব আমাদের ইতিহাস সঠিক নয়, এই বক্তব্যকে পেরিয়ে নতুন করে গবেষণা শুরু করতে। একবার সেই ইতিহাস লেখা হলে, মিথ্যাভাষণের এই ধারাকে মুছে দেওয়া যাবে।'

    উল্লেখ্য, অনেক দিন ধরেই ওয়াকিবহাল মহলের একাংশের দাবি, অত্যন্ত সুচারুভাবে দেশের ইতিহাসকে নিজেদের মতো করেই লিখতে চলেছেন মোদি অ্যান্ড কোং। নেতাজি ও আইএনএ মিউজিয়ামে তাই বিস্তারিতভাবে উল্লেখ রয়েছে কংগ্রেসের (Congress) ত্রিপুরী ও হরিপুরা অধিবেশনে তাঁর সঙ্গে মহাত্মা গান্ধীর (Mahatma Gandhi) বিরোধের আখ্যান। ফুলিয়ে ফাঁপিয়ে দেখানো হয়েছে স্বাধীনতা সংগ্রামে বিনায়ক দামোদর সাভারকরের ভূমিকাকেও।

    ‘আজাদি কে দিওয়ানে মিউজিয়াম’-এর একটি বড় অংশে তুলে ধরা হয়েছে বিপ্লবীদের কালাপানি অধ্যায়। তৈরি করা হয়েছে সেলুলার জেলের প্রতিকৃতি। সেখানেই স্থান পেয়েছে সাভারকরের ছবি। ঘটা করে লেখা রয়েছে তাঁর ‘কীর্তি’। যদিও সেখানে ইংরেজদের কাছে ক্ষমা চেয়ে তাঁর চিঠি বা পাখির পিঠে চেপে জেল থেকে বেরিয়ে আসার কথা লেখা নেই।

    বিশ্লেষকদের বক্তব্য, পাঠ্যক্রম, সরকারি বিভিন্ন নথি-সহ অন্যান্য ক্ষেত্রেও নেতাজিকে অবিভক্ত ভারতের প্রথম প্রধানমন্ত্রী হিসাবে উল্লেখ করা শুরু করবে কেন্দ্র। যার আসল লক্ষ্য প্রথম প্রধানমন্ত্রী হিসাবে জওহরলাল নেহরুর নাম মুছে দিয়ে সাভারকর-সহ অন্যান্যদের ‘অবদান’ ভবিষ্যৎ প্রজন্মের সামনে তুলে ধরা। এবার অমিত শাহর বক্তব্যে সেই প্রবণতাই যেন ফের লক্ষিত হল।
  • Link to this news (প্রতিদিন)