• পাশাপাশি ওয়ার্ডে একই ভোটার, অভিযোগ তুলে কমিশনে BJP
    এই সময় | ২৫ নভেম্বর ২০২১
  • এই সময় ডিজিটাল ডেস্ক: ভুয়ো ভোটারে ভরে যাচ্ছে বেহালা, কলকাতা পুরসভা নির্বাচনের আগে এমনইঅভিযোগ তুলছে BJP। কলকাতা পুরসভার দু’টি ওয়ার্ডের ভোটার তালিকায় একই ভোটারের নাম রয়েছে বলে দাবি করছেন BJP নেতারা।

    পুরভোটের দামামা বেজে গিয়েছে গত মাস থেকেই। সেই আবহে নতুন করে চড়ছে রাজনীতির পারদ। আর এরই মধ্যে পূর্ব বেহালা বিধানসভা এলাকার অধীনস্ত ১১৬ নম্বর ওয়ার্ডের BJP নেতাদের অভিযোগ এলাকার বেশ কিছু ভোটারের নাম রয়েছে ঠিক পাশেও ওয়ার্ডেও। ১১৬ ও ১১৭নম্বর ওয়ার্ডের ভোটার তালিকায় একই ব্যক্তির নাম রয়েছে এবং এঁরা প্রত্যেকেই তৃণমূলের কর্মী সমর্থক বলে দাবি BJP-র। নেতাদের দাবি, তাঁদের হাতে এ রকম প্রমাণও রয়েছে, যেখানে একই ব্যক্তি ১১৬ ও ১১৭ দু’টি ওয়ার্ডেরই ভোটার। দলের তরফ থেকে ইতিমধ্যেই নির্বাচন কমিশনের কাছে অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে বলে তাঁদের দাবি।

    জানা গিয়েছে, ১১৬ নম্বর ওয়ার্ডে গত দু’বছর আগে ভোটার সংখ্যা ছিল ২২৫৩৬। এ বারের তালিকায় দেখা যাচ্ছে ভোটার সংখ্যা ২৪১৬৪। অর্থাৎ দু’বছরের মধ্যে মোট ১৬২৮ জন ভোটার বেড়ে গিয়েছে ওই ওয়ার্ডে।BJP-র সন্দেহ যে এই ১৬২৮ জন ভোটারের মধ্যে অনেকেই ভুয়ো হতে পারেন। তারপরই তাঁরা মিলিয়ে দেখেছেন এমন বহু ভোটারের নাম ১১৬ নম্বর ওয়ার্ডের তালিকায় রয়েছে যাঁরা ১১৭ নম্বর ওয়ার্ডের তালিকাতেও নিজেদের ভোটার বলে নাম তুলেছেন। একেবারে পাশাপাশি দু’টি ওয়ার্ডে একই নাম থাকার ঘটনায় বিরল। এমন অভিযোগ নিয়ে শোরগোলও পড়ে গিয়েছে।

    পূর্ব বেহালা বিধানসভা নির্বাচনে তৃণমূল প্রার্থী রত্না সরকার ওই ওয়ার্ডে মাত্র ৮০০ ভোটে এগিয়ে ছিলেন BJP প্রার্থী পায়েল সরকারের থেকে। BJP-র ১১৬ নম্বর ওয়ার্ডে তৃণমূলের জয়ের ব্যবধান কম ছিল বলেই এ বার পুরভোটের আগে ঘর গোছাতে চাইছে তৃণমূল। সে ক্ষেত্রে আরও একটি মারাত্মক অভিযোগ তুলছেন BJP নেতারা। তাঁদের দাবি, ১১৬ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর তৃণমূলের কৃষ্ণ সিংহ। আবার ১১৭ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর এই কৃষ্ণ সিংহেরই ভাই অমিত সিংহ। ফলে পাশাপাশি দুই ওয়ার্ডের কাউন্সিলরের পারিবারিক সম্পরর্ক থাকায় ভোটার তালিকায় কারচুপি করা সহজ হয়েছে বলে তাঁদের দাবি।

    যদিও অভিযোগ ফুৎকারে উড়িয়ে দিয়েছেন ১১৬ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর তৃণমূলের কৃষ্ণ সিংহ। তিনি বলেন, ‘আরে যা খুশি অভিযোগ করলেই হল নাকি! ভোটার তালিকা কি আমি আর আমার ভাই বানিয়েছি? সে তো নির্বাচন কমিশনের কাজ। তারা বুঝবে। আমরাও খতিয়ে দেখছি, একই ব্যক্তির নাম দু’জায়গায় থাকলে নিয়ম অনুযায়ী নাম বাদ যাবে।’
  • Link to this news (এই সময়)