• তৃণমূলে তুঙ্গে প্রার্থী-চর্চা, তৈরি হচ্ছে বিরোধীরাও
    আনন্দবাজার | ২৬ নভেম্বর ২০২১
  • ভোটের দিন ঘোষণার পরই প্রার্থী তালিকা নিয়ে তৎপরতা শুরু হল শাসক ও বিরোধী শিবিরে। তৃণমূল কংগ্রেস সূত্রে খবর, দলের প্রার্থী তালিকা আগেই কমবেশি চূড়ান্ত হয়ে গিয়েছে। আজ, শুক্রবার বিকেলে একসঙ্গে সম্পূর্ণ তালিকা ঘোষণা করা হতে পারে। অন্য দিকে বিজেপি, বাম এবং কংগ্রেসেরও প্রস্তুতি শেষ পর্বে বলেই জানা গিয়েছে।বিধানসভা ভোটে বিপুল জয়ের পরে কলকাতা পুরভোটে দলগত ভাবে অনেকটাই সুবিধাজনক জায়গায় রয়েছে তৃণমূল। তবে এ বারের পুরভোটের আগে প্রার্থী বদলের চর্চা রয়েছে তৃণমূলের অন্দরে। বিশেষ করে নতুন মুখ আর ‘এক ব্যক্তি এক পদ’ নীতি— প্রার্থী তালিকায় এই দুইয়ের প্রভাব কতটা পড়ে তা নিয়ে কৌতূহল রয়েছে। এই দুই কারণে বিদায়ী পুরবোর্ডের কারা বাদ পড়তে পারেন, এ দিন পর্যন্ত সে বিষয়ে নির্দিষ্ট কিছু জানা যায়নি। দলের এক শীর্ষ

    নেতার কথায়, ‘‘উত্তর ও দক্ষিণ কলকাতার দুই জেলা কমিটির কাছে প্রার্থী হতে চেয়ে বহু আবেদন জমা পড়েছে। একই ভাবে সরাসরি তৃণমূল ভবনেও অনেকে আবেদন জমা দিয়েছেন। সে সবই দলনেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিবেচনার জন্য পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে।’’ সংরক্ষণের কারণে তৃণমূল বেশ কিছু আসনে নতুন মুখ আনতে পারে। সেই সঙ্গে কয়েকটি ক্ষেত্রে ভাবমূর্তি ও অন্যান্য বিষয় বিবেচনা করে প্রার্থী বদল করার কথা ভাবা হয়েছে। চলতি বছরেই দলে ‘এক ব্যক্তি এক পদ’ নীতির কথা বলেছে তৃণমূল। মন্ত্রী, সাংসদ বা বিধায়কদের এই নীতির আওতায় আনা হবে কি না বা তাঁদের কেউ কেউ ব্যতিক্রম বিবেচিত হবেন কি না তা নিয়ে চর্চা রয়েছে।

    বিধানসভা ভোটের নিরিখে বিরোধী হিসেবে শক্তি বেড়েছে বিজেপির। দলীয় সূত্রে খবর, কলকাতার প্রার্থী তালিকা নিয়ে এ দিন চূড়ান্ত পর্বের আলোচনা শুরু করেছেন দলীয় নেতৃত্ব। রাজ্য দলের সহ-সভাপতি প্রতাপ বন্দ্যোপাধ্যায়, ব্যারাকপুরের সাংসদ অর্জুন সিংহ-সহ আরও কিছু নেতা প্রার্থী বাছাইয়ের বৈঠকে ছিলেন। দলীয় সূত্রে খবর, দুই বা তার বেশি দফায় প্রার্থী তালিকা ঘোষণা করতে পারে বিজেপি।কলকাতা জেলা বামফ্রন্ট ইতিমধ্যেই ১২৭টি আসনে প্রার্থীর নাম মোটামুটি চূড়ান্ত করে ফেলেছে। বাকি ১৪টি আসনে কংগ্রেস বা উপযুক্ত সমমনোভাবাপন্ন কোনও প্রার্থীকে সমর্থন করার বিষয়ে আলোচনা চলছে। আজ, শুক্রবার বামেদের প্রার্থী তালিকা ঘোষণা হওয়ার কথা।কলকাতা পুরভোটে কমবেশি ১০০ আসনে প্রার্থী দিতে চায় কংগ্রেস। প্রাথমিক আলোচনায় ঠিক হয়েছে, বিদায়ী বোর্ডের দলীয় কাউন্সিলররা সকলেই প্রার্থী হবেন। এ দিনই কলকাতায় দলীয় প্রার্থীদের প্রচারের জন্য একটি কমিটি ঘোষণা করেছে প্রদেশ কংগ্রেস।

  • Link to this news (আনন্দবাজার)