• নয়া স্ট্রেনের আতঙ্কের মাঝেই দেশে ১৫% বাড়ল করোনা সংক্রমণ
    এই সময় | ২৬ নভেম্বর ২০২১
  • এই সময় ডিজিটাল ডেস্ক: একদিকে যখন নতুন কোভিড স্ট্রেন মাথাব্যাথার কারণ হয়ে দাঁড়াচ্ছে ঠিক সেই সময় নতুন করে বাড়ল দেশের দৈনিক করোনা সংক্রমণ। ভারতের কোভিড সংক্রমণের হার গতকালের থেকে ১৫.৬ শতাংশ বেশি। কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রকের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী, গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে নতুন করে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন, ১০ হাজার ৫৪৯ জন মৃত্যু হয়েছে ৪৮৮ জনের। কোভিড সংক্রমণ এবং মৃত্যুর এই বাড়বাড়ন্তে উদ্বিগ্ন বিশেষজ্ঞমহল।

    বিগত কয়েকদিন ধরেই কমছিল দেশের করোনা সংক্রমণ। আর কোভিডের এই নিম্নমুখী গ্রাফ স্বস্তি ফেরাচ্ছিল। কিন্তু, ফের একবার বাড়ছে করোনা। এই মুহূর্তে দেশে সক্রিয় করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ১ লাখ ১০ হাজার ১৩৩ জন, যা গত ৫৩৯ দিনের মধ্যে সর্বনিম্ন। দেশে এখনও পর্যন্ত মোট করোনাআক্রান্তের সংখ্যা ৩ কোটি ৪৫ লাখ ৫৫ হাজার ৪৩১ জন এবং করোনা প্রাণ কেড়েছে ৪ লাখ ৬৭ হাজার ৪৬৮ জনের। ভারতে বর্তমানে কোভিডে সুস্থতার হার ৯৮.৩৩ শতাংশ, যা ২০২০ সালের মার্চ মাস থেকে এখনও পর্যন্ত সর্বোচ্চ।

    ভারতের দৈনিক করোনা সংক্রমণ টানা ৪৯ দিন ২০০০০ এর নীচে রয়েছে। এদিকে , ইউরোপে বাড়ছে করোনা সংক্রমণ। ইউরোপ ও এশিয়ায় ৭ লাখ প্রাণ কাড়তে পারে করোনাভাইরাস, এমনই আশঙ্কা প্রকাশ করছে WHO।WHO-র রিজিওনাল ডিরেক্টর হান্স ক্লুগের কথায়, 'মধ্য এশিয়া এবং সমগ্র ইপরোপে বর্তমানে কোভিড পরিস্থিতি উদ্বেগজনক। শীতকালে তা আরও ভয়ানক রূপ ধারণ করতে পারে।' এদিকে কোভিড চোখ রাঙাচ্ছে জার্মানি, রাশিয়া, অস্ট্রিয়াতেও। জার্মানির স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, 'হয় আপনারা টিকা গ্রহণ করে নিরাপদে থাকুন নয় মৃত্যু অনিবার্য।'

    উল্লেখ্য করোনাভাইরাসের হাত থেকে রেহাই পেতে টিকাকরণে দেওয়া হচ্ছে বিশেষ জোর। এখনও পর্যন্ত দেশে টিকা পেয়েছেন ১২০ কোটির বেশি বাসিন্দা। এদিকে, টিকার তৃতীয় ডোজ অর্থাৎ বুস্টার শট নেওয়ার প্রয়োজনিয়তা প্রসঙ্গে AIIMS-এর ডিরেক্টর ডা: রণদীপ গুলেরিয়া বলেন, 'বর্তমানে করোনাসংক্রমণের হার অত্যন্ত বেড়ে গিয়েছে এই ধরনের কোনও তথ্য সামনে আসছে না। সেরো সার্ভের রিপোর্ট বলছে এমনটাই। সেক্ষেত্রে এখনই আমাদের বুস্টার ডোজের প্রয়োজন নেই। হয়তো ভবিষ্যতে আমাদের করোনার আরও একটি ডোজ নিতে হতে পারে। কিন্তু, আপাতত আরও একটি টিকার ডোজ নেওয়া অপ্রয়োজনীয়।' তিনি আরও বলেন, ' আমাদের উচিত আরও মানুষ যাতে করোনাটিকার প্রথম এবং দ্বিতীয় ডোজ নেন সেই বিষয়ে সচেতন করা। যদি সকলে টিকা নেন তাহলে আমরা সকলে সুরক্ষিত থাকব।'
  • Link to this news (এই সময়)