• পণের টাকা হস্টেল তৈরিতে দান কনের
    এই সময় | ২৬ নভেম্বর ২০২১
  • বারমের: মেয়ের বিয়েতে পণ দিতে হবে, সেটা ভেবেই ৭৫ লক্ষ টাকা সরিয়ে রেখেছিলেন বারমেরের কিশোর সিং কানোড়। কিন্তু বিয়ের আগে তাঁর মেয়ে যে এমন বিপ্লব ঘটাবে আন্দাজ করতে পারেননি রাজস্থানের এই বাসিন্দা। বিয়ের ঠিক আগে মেয়ে অঞ্জলি কানওয়ার বাবাকে স্পষ্ট জানালেন, তাঁর বিয়ের পণের জন্য রাখা টাকা মেয়েদের একটা হস্টেল গড়ার জন্য দান করতে হবে বাবাকে! নারীশিক্ষা এগিয়ে নিয়ে যেতে মেয়ের এমন আব্দার শুনে দ্বিতীয়বার ভাবেননি বাবা। ছাত্রীনিবাস গড়ার জন্য এক কথায় ৭৫ লক্ষ টাকা দিয়ে দেন তিনি।

    অঞ্জলির এই অভিনব উদ্যোগের কাহিনি নেটদুনিয়ায় ভাইরাল। বিয়ের আগে বাবার কাছে ইচ্ছের কথা খুলে বললেও তখনই পাত্রপক্ষকে কিছু জানাননি অঞ্জলি। বিয়ের নিয়ম-কানুন শেষ হওয়ার পর মহান্ত প্রতাপ পুরীর কাছে গিয়ে অঞ্জলি নিজের মনোবাসনা জানান এবং মণ্ডপে সকলের সামনে বাবা মেয়ের হাতে চেক তুলে দেন নারীশিক্ষার উন্নতিতে দান করার জন্য। মণ্ডপজুড়ে তখন হাততালির ঝড়।

    তারাতারা মঠের মহান্ত প্রতাপ পুরীও মনে করেন, বিয়ের সময় টাকার বিনিময়ে কন্যাদান না করে সেই টাকা সমাজের উন্নতির জন্য দান একটা সুন্দর নজির স্থাপন করল। অঞ্জলির বাবা আগেই এই ছাত্রীনিবাসের জন্য এক কোটি টাকা দেবেন বলে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ হয়েছিলেন। কিন্তু আরও ৫০-৭৫ লক্ষ টাকার জন্য হস্টেলের কাজ আটকে ছিল। অঞ্জলির দান সেই অভাব পূরণ করে দিল।
  • Link to this news (এই সময়)