•  রবীন্দ্রভারতী শিক্ষকদের বাধায় এমসিকিউ নয়, পরীক্ষা হবে বাড়ি থেকেই
    বর্তমান, 16 September 2020
  • নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: যাদবপুর, কলকাতা বা বিএড বিশ্ববিদ্যালয়ের মতো রবীন্দ্রভারতীর পড়ুয়ারাও পরীক্ষা দিতে পারবেন বাড়ি থেকেই। সোমবার এই বিশ্ববিদ্যালয়ের এগজিকিউটিভ কাউন্সিলের বৈঠক ছিল। সেখানে ঠিক হয়েছে, হোম অ্যাসাইনমেন্টের মাধ্যমে স্নাতক এবং স্নাতকোত্তর স্তরে ফাইনাল সেমেস্টারের পরীক্ষা নেওয়া হবে। কর্তৃপক্ষের ইচ্ছে ছিল এমসিকিউ বা অতি সংক্ষিপ্ত প্রশ্ন দিয়ে অনলাইনে পরীক্ষা নেওয়ার। কিন্তু শিক্ষকরা এতে বেঁকে বসেন। এগজিকিউটিভ কাউন্সিলে মূলত তাঁদের আপত্তিতেই সেই প্রস্তাব খারিজ হয়। তাঁদের বক্তব্য, কলা বিভাগের প্রশ্নগুলি অতি সংক্ষিপ্ত করা সম্ভব নয়। তার চেয়ে কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের ধাঁচেই ওয়েবসাইটে প্রশ্নপত্র তুলে উত্তর লিখে জমা দেওয়ার জন্য একদিন সময় দেওয়া হোক ছাত্রছাত্রীদের। শেষ পর্যন্ত এই প্রস্তাবেই সিলমোহর পড়েছে বলে বৈঠক সূত্রে খবর।

    এদিন রবীন্দ্রভারতী বিশ্ববিদ্যালয়ের কোর্ট বৈঠক হয়েছিল। উপাচার্য সব্যসাচী বসু রায়চৌধুরীর মেয়াদ ডিসেম্বরে শেষ হচ্ছে। তাই সার্চ কমিটি গঠন করতে হবে। সেই সার্চ কমিটিতে বিশ্ববিদ্যালয়ের কোর্ট প্রতিনিধি মনোনয়নের বৈঠক ছিল এদিন। সূত্রের খবর, একজন ডিন এই বৈঠকে রাজ্যের বিএড বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য সোমা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নাম প্রস্তাব করেন। কর্তৃপক্ষ তাঁকে সার্চ কমিটিতে কোর্ট প্রতিনিধি হিসেবে চাইছিল বলে শিক্ষকদের একাংশের দাবি। কিন্তু তাঁর নাম নিয়ে কোর্ট বৈঠকে শিক্ষক প্রতিনিধিরা বেঁকে বসেন। কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাক্তন উপাচার্য আশিস বন্দ্যোপাধ্যায়ের নাম প্রস্তাব করেন অর্থনীতির এক অধ্যাপক। ভোটাভুটি হয়। শেষ পর্যন্ত ১১-৭ ভোটে পাল্লা ভারী হয় আশিসবাবুর দিকে। প্রসঙ্গত, শিক্ষকদের একাংশ সব্যসাচীবাবুকে উপাচার্য হিসেবে চায় না। তাঁদের মনে হয়েছে, সোমা বন্দ্যোপাধ্যায় সার্চ কমিটিতে এলে সব্যসাচীবাবুর ফের একবার উপাচার্য পদে যোগ দেওয়ার সম্ভাবনা জোরদার হতো। সেই কারণেই এই প্রস্তাবের বিরোধিতা করা হয় বলে সূত্রের খবর। 
  • Link to News (বর্তমান)