• MAMATA: চালসায় অন্য মুডে মুখ্যমন্ত্রী, মিশে গেলেন সাধারণের মধ্যে
    আজকাল | ০৪ এপ্রিল ২০২৪
  • অতীশ সেন, ডুয়ার্স: চালসায় তৃতীয় দিন সাধারণ মানুষের মধ্যে মিশে গেলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি, সারাদিন শুনলেন চা শ্রমিকদের সমস্যার কথা, ছাত্রছাত্রীদের সঙ্গেও কথা বললেন, চেনা ছন্দে জনসংযোগ সারলেন তিনি। মহিলা চা শ্রমিকদের সাথে চা পাতা তোলার পাশাপাশি চায়ের দোকানে ঢুকে নিজে হাতে চা বানিয়ে খাওয়ালেন সকলকে। ক্ষুদ্র চা চাষীদের সমস্যা নিয়ে তিনি যে যথেষ্ট চিন্তিত সেটিও জানালেন। বুধবার সারা দিন পরিচিত মেজাজেই মুখ্যমন্ত্রীকে খুব কাছ থেকে দেখলেন ডুয়ার্সের মেটেলি ব্লকের বাসিন্দারা। বুধবার ক্ষুদ্র চা চাষীদের সমস্যা শোনার পর দুপুরে নাগাদ মুখ্যমন্ত্রী রিসোর্ট থেকে বেরোন। মুখ্যমন্ত্রী কনভয় নিয়ে পৌঁছে যান মেটেলি ব্লকের আইভিল চা বাগানে। সেখানে মহিলা চা শ্রমিকদের সঙ্গে চা পাতা তোলেন এবং তাঁদের দৈনন্দিন সমস্যার কথা শোনেন। কথা বলেন বাগানে কর্মরত শ্রমিকদের পাশাপাশি বাসিন্দাদের সঙ্গে। সেখানে জনসংযোগ সারার পর আইভিলের একটি দোকানে গিয়ে জিনিসপত্রের দাম জিজ্ঞেসা করেন মুখ্যমন্ত্রী। আইভিল থেকে ফেরার পথে কিলকোট চা বাগানের মোড়ে তিনি দাঁড়িয়ে যান। সেখানে স্থানীয় বাসিন্দাদের পাশাপাশি শ্রমিকদের সঙ্গে বেশ কিছুক্ষণ কথা বলেন। স্থানীয়রা জানান, বাগানে পানীয় জলের সমস্যা রয়েছে, চা বাগানের ফ্যাক্টরি বন্ধ রয়েছে, পাশাপাশি প্রভিডেন্ট ফান্ডের টাকাও জমা হচ্ছে না। বেহাল রাস্তা মেরামত এবং হিন্দি ও সাদরি মাধ্যমের স্কুল তৈরির দাবিও বাসিন্দারা জানান। মুখ্যমন্ত্রী বলেন, নির্বাচনী আচরণবিধি থাকায় তিনি কিছু বলবেন না, তবে তাঁদের সমস্যা সমাধানের আশ্বাস দেন তিনি। চালসা ফেরার পর সাতখাইয়া এলাকায় স্কুল পড়ুয়াদের সঙ্গেও কথা বলেন মুখ্যমন্ত্রী। এরপর তিনি চলে যান চালসার মঙ্গলবাড়ি বাজারে, সেখানে রাস্তার পাশের একটি দোকানে ঢুকে নিজে হাতে চা বানান। চা বানানোর ফাঁকে দোকানি ও স্থানীয়দের সঙ্গে কথা বলার পাশাপাশি তাঁদের সমস্যা বুঝে নেওয়ার চেষ্টা করেন। এর পর তিনি আবার বেসরকারি রিসোর্টে ফিরে আসেন। সেখানে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে তিনি চা চাষীদের সমস্যা সহ বিভিন্ন বিষয় নিয়ে কথা বলেন।
  • Link to this news (আজকাল)