• জামিন মিললেও আজই জেল মুক্তি হচ্ছে না শাহরুখ পুত্রের
    বর্তমান | ২৯ অক্টোবর ২০২১
  • মুম্বই: দীর্ঘ ২৫ দিনের টানাপোড়েন। অবশেষে মাদক কাণ্ডে জামিন পেলেন শাহরুখ পুত্র আরিয়ান খান। মঙ্গলবার ও বুধবার পরপর দু’দিন তাঁর জামিনের শুনানি স্থগিত রাখেন বিচারপতি নিতিন সাম্বর। বুধবারই বম্বে হাইকোর্টের কাছে ১ ঘণ্টা সময় চেয়েছিলেন এনসিবির আইনজীবী অনিল সিং। এরপর আজ, বৃহস্পতিবার দুপুর ২.৩০টা নাগাদ ফের শুরু হয় আরিয়ানের শুনানি। বুধবার আরিয়ান খান, আরবাজ মার্চেন্ট ও মুনমুন ধামেচার আইনজীবীর পক্ষের কথা শোনার পরই তিন অভিযুক্তের জামিনের শুনানি ফের স্থগিত রেখেছিলেন বিচারক। দু’পক্ষের সওয়াল জবাবের পর অবশেষে বম্বে হাইকোর্ট তাঁর জামিন মঞ্জুর করল। আরিয়ানের পাশাপাশি তাঁর বন্ধু আরবাজ মার্চেন্ট এবং মুনমুন ধামেচার জামিনও মঞ্জুর করেছে আদালত। তবে জামিন মঞ্জুর হলেও এদিন বিস্তারিত রায় দেয়নি আদালত। তাই আজই আরিয়ানদের জেল থেকে ছাড়া পাওয়ার সম্ভাবনা কম বলে জানা যাচ্ছে। জামিন মঞ্জুরের বিস্তারিত কারণ জানানোর পরেই আর্থার রোড জেল থেকে ছাড়া পাবেন আরিয়ানরা।  আগামিকাল অথবা আগামী পরশু তাঁদের জেলমুক্তি ঘটতে পারে বলে আরিয়ানের আইনজীবীর দাবি। উল্লেখ্য, ২১ দিন  ধরে মুম্বইয়ের আর্থার রোড জেলে বন্দি রয়েছেন আরিয়ান খান।

    বৃহস্পতিবার এনসিবি তাঁদের বক্তব্য পেশ করে বম্বে হাইকোর্টে। অনিল সিং আদালতে জানান, আরিয়ানের কাছে থেকে মাদক পাওয়া না গেলেও আরবাজের কাছে থেকে পাওয়া গিয়েছে। আর সেই মাদকই ওই পার্টিতে সেবনের পরিকল্পনা ছিল বলেই জানিয়েছিল আরিয়ানই। এমনকি আরিয়ানের চ্যাট থেকে কমার্শিয়াল কোয়ান্টিটি মাদক কেনার সূত্র পাওয়া যায় বলে দাবি করেন তিনি। আরিয়ানের বিরুদ্ধে তাঁদের কাছে যথেষ্ট প্রমাণ আছে বলেও আদালতে দাবি করে এনসিবি।

    অন্যদিকে, আরিয়ানের আইনজীবী মুকুল রোহাতগি এদিন আদালতে বলেন, আরিয়ানের সঙ্গে আটক হওয়া যে পাঁচজনের থেকে মাদক পাওয়া গিয়েছে, তার দায় আরিয়ানের উপর চাপানোর চেষ্টা করা হচ্ছে। তিনি জানতেনই না, তাঁর সঙ্গে যাঁরা ওই পার্টিতে ছিলেন তাঁদের কাছে মাদক রয়েছে। পাশাপাশি তিনি বলেন অচিতের থেকে মাত্র ২.৪ গ্রাম মাদক পাওয়া গেছে। একজন মাদকপাচারকারীর কাছে মাত্র ২.৪ গ্রাম মাদক থাকা কি যুক্তিযুক্ত ? এদিন প্রশ্ন তোলেন প্রাক্তন অ্যাটর্নি জেনারেল। 
  • Link to this news (বর্তমান)