• ?বিশ্বকাপের জন্য জাকির নায়েককে আমন্ত্রণ জানানো হয়নি?, ভারতের কড়া বার্তার পর জবাব কাতারের
    প্রতিদিন | ২৫ নভেম্বর ২০২২
  • সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: জাকির নায়েককে (Zakir Naik) আমন্ত্রণ জানানো নিয়ে নিজেদের অবস্থান স্পষ্ট করল কাতার। তাদের তরফে জানানো হয়েছ, বিশ্বকাপ (Qatar World Cup) উপলক্ষ্যে বিতর্কিত জাকিরকে আমন্ত্রণ করেনি কাতার প্রশাসন। এই বিষয়টি নিয়ে কাতারকে কড়া বার্তা দেবে ভারত, এমনটাই জানিয়েছিলেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী হরদীপ সিং পুরী (Hardeep Singh Puri)। তার পরের দিনই সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে ভারতীয় বিদেশ মন্ত্রকের মুখপাত্র অরিন্দম বাগচি জানান, জাকির নায়েককে আমন্ত্রণের বিষয়ে ভারতের সঙ্গে যোগাযোগ করেছে কাতার প্রশাসন। তাদের তরফে জানানো হয়েছে, ফুটবল বিশ্বকাপের জন্য মোটেই আমন্ত্রণ করা হয়নি জাকিরকে।

    কাতার বিশ্বকাপ শুরু হওয়ার আগেই জানা যায়, টুর্নামেন্ট চলাকালীন সেদেশের নানা ঘুরে ভাষণ দেবেন বিতর্কিত ধর্মগুরু জাকির। তারপরেই বিতর্ক শুরু হয়ে যায়। বিশ্বকাপ বয়কট করার ডাক দেন বিজেপি নেতা। কেন্দ্রীয় মন্ত্রী হরদীপ সিং পুরী স্পষ্ট জানিয়ে দেন, ভারতকে না জানিয়েই জাকির নায়েককে আমন্ত্রণ জানিয়েছে কাতার। এই বিষয়টি নিয়ে কাতার প্রশাসনকে কড়া বার্তা দেবে ভারত, জানিয়েছিলেন হরদীপ।

    এই মন্তব্যের পরেই কাতার প্রশাসন নড়েচড়ে বসেছে বলে জানা যায়। বৃহস্পতিবার সাংবাদিক বৈঠকে অরিন্দম বাগচি জানান, 'জাকির নায়েককে আমন্ত্রণ প্রসঙ্গে কাতারের কাছে কড়া বার্তা দিয়েছে ভারত। সেদেশের তরফ থেকে জানানো হয়েছে, বিশ্বকাপে বক্তৃতা দেওয়ার জন্য ডাকা হয়নি জাকির নায়েককে। বিশ্বকাপের সঙ্গে জাকির নায়েকের কোনও যোগ নেই।' প্রসঙ্গত, বেশ কিছুদিন আগে জাকিরের একটি মন্তব্যের ভিডিও ভাইরাল হয়ে গিয়েছিল। বিতর্কিত ধর্মগুরু সেখানে বলেছিলেন, ফুটবল খেলা আসলে হারাম। এহেন মন্তব্যের পরেও কী করে তাঁকে বিশ্বকাপের সময়ে আমন্ত্রণ জানানো হল, তা নিয়ে বিতর্ক শুরু হয়েছিল।

    বৃহস্পতিবার বিদেশমন্ত্রকের তরফে একটি বিবৃতি দেওয়া হয়েছে। সেখানে বলা হয়েছে, ' ভারতের চোখে জাকির নায়েক একজন অপরাধী। ইতিমধ্যেই মালয়েশিয়ার কাছে জাকিরকে প্রত্যর্পণের আবেদন জানানো হয়েছে।' তাঁকে ভারতীয় দণ্ডবিধি অনুসারে শাস্তি দেওয়ার প্রক্রিয়া শুরু করা হয়েছে বলেও জানিয়েছে বিদেশমন্ত্রক। প্রসঙ্গত, ২০১৬ সালে ভারত থেকে পালিয়ে যান জাকির। তারপর থেকে মালয়েশিয়ার নাগরিক এই বিতর্কিত ধর্মগুরু।
  • Link to this news (প্রতিদিন)