• Uttar Pradesh: ছেলেবন্ধুকে চুমু ছেলের! দেখে ফেলায় ভয়ংকর পরিণতি বাবার...
    ২৪ ঘন্টা | ১৬ মে ২০২৪
  • জি ২৪ ঘণ্টা ডিজিটাল ব্যুরো: ছেলে সমপ্রেমী,তাতে প্রবল আপত্তি বাবার। তারই জেরে বাবাকেই নির্মমভাবে খুন করল ছেলে। ঘটনাটি ঘটে, উত্তরপ্রদেশের মথুরায়। জানা গিয়েছে, পুলিস ছেলে এবং তাঁর ৩ বন্ধুকে পুলিস ইতোমধ্যেই গ্রেফতার করেছে।ঘটনাটি প্রকাশ্যে আসে ৪ মে। যখন বাবার পোড়া মৃতদেহ একটি বাক্স থেকে উদ্ধার করা হয়। পুলিস সূত্রে খবর, চার বন্ধু মিলে ওই ব্যক্তিকে খুন করে। পরে জানা যায়, এই মর্মান্তিক কাণ্ড সেই ব্যক্তিরই ছেলে তাঁর তিন বন্ধুকে নিয়ে ঘটিয়েছে। জানা গিয়েছে, ওই ব্যক্তি তাঁর ছেলের বন্ধুর সঙ্গে ঘনিষ্ঠ অবস্থায় দেখে ফেলেন। সম্পর্কের কথা জানতে পেরে যান বাবা। সমপ্রেম নিয়ে আপনি জানায়। যার ফলে বাবা-ছেলের মধ্যে প্রায়শই বচসা হয়।

    তর্ক-বিতর্ক চূড়ান্ত পর্যায়ে গিয়ে ওই ব্যক্তিকে তাঁর ছেলে সহ তিন বন্ধু মিলে ছুরি দিয়ে খুন করে। তারপর এক বাক্সের মধ্যে তাঁর মৃতদেহকে লুকিয়ে রাখে। সেই বাক্সবন্দি মৃতদেহকে আলিগড় রোডে নিয়ে আসে। এবং তাতে আগুন ধরিয়ে দেয়। ২৪ ঘণ্টা পরে সেটি থেকে প্রবল দুর্গন্ধ বের হতে শুরু করে। পুলিস জানিয়েছে, সিসিটিভি ফুটেজের ভিত্তিতে অভিযুক্তদের শনাক্ত করা হয়। ইতোমধ্যেই পুলিসের সঙ্গে এনকাউন্টারে দুজন ধরা পড়েছে। এবং বাকি দুজনকে পরে গ্রেফতার করা হয়।কিছুদিন আগেই উত্তরপ্রদেশের সীতাপুরে ঘটে হাড়হিম হত্যাকাণ্ড! তিন শিশু-সহ পরিবারের ৫ জনকে গুলি করে খুন যুবকের। গুলিতে আত্মঘাতী নিজেও। মাদকাসক্ত যুবককে মাদকমুক্তি কেন্দ্রে পাঠানোর কথা বলায় বচসা। আচমকা এলোপাথাড়ি গুলি।জানা গিয়েছে, অনুরাগ তাঁর মাকে গুলি করে। স্ত্রীকে হাতুড়ি দিয়ে হত্যা করে এবং বাচ্চাদের ছাদ থেকে ফেলে দেয়। এরপর তিনি নিজেকে গুলি করেন।  পুলিস আধিকারিকরা জানিয়েছেন, অনুরাগ মাদকাসক্ত ছিলেন। পরিবারের লোকজন তাকে মাদকমুক্ত কেন্দ্রে নিয়ে যেতে চাইলে রাতে এ নিয়ে বাদানুবাদ হয়। এরপর সকালে এই মর্মান্তিক ঘটনা ঘটে।অন্যদিকে, স্বামীর গোপনাঙ্গে সিগারেটের ছ্যাঁকা! শুধু তাই নয়। স্বামীর গোপনাঙ্গে সিগারেটের ছ্যাঁকা দিয়ে তাঁকে শ্বাসরোধ করে খুনের চেষ্টাও করেন স্ত্রী। চাঞ্চল্যকর এই ঘটনাটি ঘটেছে উত্তরপ্রদেশের বিজনোরে। যদিও অভিযুক্ত মহিলার অভিযোগ, স্বামী তাঁকে শারীরিক ও মানসিকভাবে হেনস্থা করেন। তিনি প্রতিবাদ করলে স্বামী তাঁকে মেরে ফেলার হুমকিও দেন। যার জেরে নিজের প্রাণ বাঁচাতেই তিনি এহেন কাণ্ড ঘটিয়েছেন বলে পুলিসের কাছে দাবি করেছেন অভিযুক্ত স্ত্রী। 
  • Link to this news (২৪ ঘন্টা)