• Sandeshkhali: গ্রেফতারির ভয়! কোথায় ক'টা মামলা? হাইকোর্টে বসিরহাটের বিজেপি প্রার্থী রেখা.....
    ২৪ ঘন্টা | ১৬ মে ২০২৪
  • অর্ণবাংশু নিয়োগী: ভোটের মাঝে ফের নজরে সন্দেশখালি। স্থানীয় মহিলাদের সঙ্গে যখন কথা বললেন বিজেপি নেত্রী প্রিয়াঙ্কা টিবরেওয়াল, তখন হাইকোর্টের দ্বারস্থ হলেন বসিরহাটে দলের প্রার্থী রেখা পাত্র। তাঁর বিরুদ্ধে কোথায় ক'টা মামলা করেছে পুলিস? জানতে চান  রেখা। সঙ্গে 'রক্ষাকবচ' চেয়েও আবেদন জানিয়েছেন আদালতে।  

    ঘটনাটি ঠিক কী? সন্দেশখালিকাণ্ডে ভিডিয়ো ভাইরাল। সেই ভিডিয়োর সত্যতা অবশ্য যাচাই করেনি জি ২৪ ঘণ্টা। তবে ভিডিয়োতে বিজেপি মণ্ডলকে সভাপতি বলতে শোনা যাচ্ছে,'রাজনীতির জন্য মিথ্যে ষড়যন্ত্রের ছক কষা হয়েছে। তৃণমূল নেতাদের গ্রেফতার না করতে পারলে আন্দোলন করা যাবে না। শুভেন্দুদা বলেছিল, গ্রেফতার না করাতে পারলে ভোট করানো যাবে না'।সন্দেশখালির ভাইরাল ভিডিয়োকাণ্ডে মাম্পি ওরফে পিয়ালী দাস নামে এক মহিলাকে তলব করেছিল পুলিস। গতকাল, মঙ্গলবার বসিরহাট মহকুমা আদালতে আত্মসমর্পন করেন মাম্পি। কিন্ত জামিন পাননি, তাঁকে পাঠিয়ে দেওয়া হয় জেল হেফাজতে। গ্রেফতারির বিরুদ্ধে হাইকোর্টের দ্বারস্থ হয়েছেন মাম্পিও। রেখা ও মাম্পি দু'জনের মামলারই শুনানির সম্ভাবনা হাইকোর্টের বিচারপতি জয় সেনগুপ্তে বেঞ্চে। কবে? আগামিকাল, বৃহস্পতিবার। এদিকে সন্দেশখালিতে বিজেপি নেত্রী প্রিয়াঙ্কা টিবরেওয়াল। এদিন প্রথমে থানায় দিয়ে ভারপ্রাপ্ত আধিকারিক, পরে স্থানীয় মহিলাদের সঙ্গে কথা বলেন তিনি। কেন? প্রিয়াঙ্কা বলেন, 'এখানে আসার উদ্দেশ্য একই আছে। আগেও আমি এসেছি, যাতে মানুষ কিন্তু বিচার পায়। তাঁদের সঙ্গে যা অত্যাচার হয়েছে... বিচার পায়.. সেকারণে আদালতের দ্বারস্থ হয়েছি। এবার রাজনীতির একটা পরিবেশ বানিয়ে..তৃণমূল যখন দেখছে..সবকিছু কালিমালিপ্ত ওদের মুখে হয়ে দিয়েছে। আন্দোলনকে শেষ করতে চাইছে'। প্রিয়াঙ্কার আরও বক্তব্য, 'পুলিস খুব চালাকি করার চেষ্টা করছে। মাম্পি দাসকে বিচারবিভাগীর হেফাজতে পাঠিয়েছে। পুলিস বলছে, আমরা তো গ্রেফতার করিনি, কোর্টে এসে গ্রেফতার হয়ে গেল। এমনি গ্রেফতার হয়ে গেলেন!  ও তো নির্যাতিতা। নিজে বলছে. আমার সঙ্গে ধর্ষণ হয়েছে। তাঁকে পুলিস গ্রেফতার করছে কেন! পুলিস মহিলাদের এটা বোঝাতে চাইছে, তোমাদের নেতা হয়ে দাঁড়াচ্ছিল, ওর ধর্ষণ হয়েছিল, গ্রেফতার করে নিয়েছি। এবার তোমরা চুপ করে থাক। মুখটা বন্ধ করে থাক, না হলে তোমাদের সঙ্গে এটাই হবে'।হাইকোর্টের নির্দেশে সন্দেশখালিকাণ্ডে তদন্ত করছে সিবিআই। প্রিয়াঙ্কা বলেন, 'সিবিআইয়ের কাছে অভিযোগ হওয়া দরকার ছিল। কে পুলিস অতিসক্রিয়? রাতে রাতে মহিলাদের ঘরে যাচ্ছে, বলছে ৫ লক্ষ টাকা পাবে। জেলাশাসককেও ছাড়ব না। জেলশাসককে বলা হয়েছিল সিসিটিভি লাগাতে, কেন লাগায়নি'?
  • Link to this news (২৪ ঘন্টা)