• ফের ঘর ভাঙছে কংগ্রেসের, প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী-সহ ১২ বিধায়ক যোগ দিচ্ছেন তৃণমূলে
    ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস | ২৫ নভেম্বর ২০২১
  • এবার মেঘালয়েও কংগ্রেসের ঘর ভাঙছে তৃণমূল। মেঘালয়ের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী মুকুল সাংমা-সহ ১২ বিধায়ক হাত ছেড়ে জোড়াফুলে যোগ দিচ্ছেন বলে দাবি তৃণমূলের। মেঘালয়ে ক্ষমতায় রয়েছে এনডিএ জোট। ৬০ আসন বিশিষ্ট মেঘালয় বিধানসভায় এনডিএ জোটের বিধায়ক সংখ্যা ৪০। রাজ্যের প্রধান বিরোধী দল কংগ্রেসের ১৭ বিধায়কের মধ্যে ১২ জনই তৃণমূলে যোগ দিচ্ছেন বলে দাবি জোড়াফুল নেতৃত্বের।

    এবার উত্তর-পূর্বের আরও এক রাজ্যে নজর তৃণমূলের। কংগ্রেসকে আরও বেশি চাপে ফেলতে এবার মেঘালয়ে তৃণমূল। দলের নেতাদের দাবি, আজই কংগ্রেস ছেড়ে আনুষ্ঠানিকভাবে তৃণমূলে যোগ দিচ্ছেন রাজ্যের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী মুকুল সাংমা। তাঁর সঙ্গেই তৃণমূলে যোগ দিচ্ছেন প্রায় হাফ-ডজন কংগ্রেস বিধায়ক। দিন কয়েক আগেই মেঘালয়ের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী মুকুল সাংমা দিল্লিতে এআইসিসি নেতৃত্বের সঙ্গে দেখা করে এসেছিলেন। সেই সাক্ষাতের এক সপ্তাহেরও কম সময়ের মধ্যে সাংমার এই বড়সড় পদক্ষেপ।

    আজ মেঘালয়ের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী-সহ ১২ কংগ্রেস বিধায়ক তৃণমূলে যোগ দিতে চলেছেন বলে শোনা যাচ্ছে। সেটা হলে জোড়াফুল নেতৃত্বের কাছে উত্তর-পূর্বের ক্ষেত্রে একটি বড়সড় সাফল্য হবে বলে বলেই মনে করছে রাজনৈতিক মহল। এদিকে প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী সাংমা দ্য ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসকে জানিয়েছেন, বৃহস্পতিবার কিছু ভালো খবর তিনি সবার সঙ্গে শেয়ার করবেন।

    উল্লেখ্য, ২০১৮ সালের নির্বাচনে ৬০ সদস্যের মেঘালয় বিধানসভায় কংগ্রেস ২১টি আসন নিয়ে একক বৃহত্তম দল হিসেবে প্রতিষ্ঠা পেয়েছিল। কনরাড সাংমার নেতৃত্বাধীন ন্যাশনাল পিপলস পার্টি (এনপিপি) ১৯টি আসন পেয়েছিল, বিজেপি দুটি জিতেছিল। তবে এনপিপি পরে বিজেপি-সমর্থিত উত্তর পূর্ব গণতান্ত্রিক জোটে যোগ দেয়।

    জানা গিয়েছে, আজ দুপুরেই সাংবাদিক সম্মেলন করে আনুষ্ঠানিকভাবে কংগ্রেস ছেড়ে তৃণমূলে যোগ দিতে পারেন মুকুল সাংমা। তাঁর সঙ্গেই তৃণমূলে যোগ দেবেন বাকি কংগ্রেস বিধায়করা। ২০২৪-এর লোকসভাকে পাখির চোখ করে এগোচ্ছে তৃণমূল। বাংলার সীমা ছাড়িয়ে ইতিমধ্যেই উত্তর-পূর্বের ত্রিপুরা, অসমে সংগঠন পোক্ত করার চেষ্টা চালাচ্ছে জোড়াফুল শিবির। এবার সেই তালিকায় ঢুকে পড়ল মেঘালয়ও।
  • Link to this news (ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস)