• Noida Airport: ‌এশিয়ার বৃহত্তম বিমানবন্দর পেল উত্তরপ্রদেশ, শিলান্যাস মোদির, কর্মসংস্থান হবে ১ লক্ষ
    আজকাল | ২৫ নভেম্বর ২০২১
  • আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ বছর ঘুরতেই উত্তরপ্রদেশে নির্বাচন। দেশের সর্ববৃহৎ রাজ্যে ক্ষমতা ধরে রাখতে উন্নয়নকে হাতিয়ার করেছে বিজেপি। উন্নয়নের বার্তাকে আরও মজবুত করতে বৃহস্পতিবার উত্তরপ্রদেশের গৌতমবুদ্ধ নগরের জেওয়ারে অবস্থিত নয়ডা আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের শিলান্যাস করলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। এটিই হতে চলেছে উত্তরপ্রদেশের পঞ্চম আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর। 

    ১৩০০ হেক্টর জমির উপর তৈরি এই বিশাল বিমানবন্দরটির কেবল প্রথম ধাপের কাজই শেষ হয়েছে এখনও অবধি। খরচ হয়েছে ১০ হাজার কোটি টাকারও বেশি। এই অংশটিই প্রতি বছর ১.২ কোটি যাত্রী পরিষেবা দিতে সক্ষম বলে জানানো হয়েছে। আগামী ২০২৪ সালের মধ্যে সম্পূর্ণ বিমানবন্দরই তৈরি হয়ে যাবে বলে জানানো হয়েছে। পুরো বিমানবন্দর তৈরিতে খরচ হবে প্রায় ৩৫ হাজার কোটি টাকা। মূলত উত্তরপ্রদেশের পূর্বাঞ্চলে গৌতম বুদ্ধ নগর, গাজিয়াবাদ, আগ্রা, ফরিদাবাদের মতো অঞ্চলগুলি আরও বেশি করে লাভবান হবে। কেন্দ্রীয় অসামরিক বিমান পরিবহন মন্ত্রী জ্যোতিরাদিত্য সিন্ধিয়া বলেছেন, এটি এশিয়ার বৃহত্তম বিমানবন্দর। এক লক্ষেরও বেশি মানুষের কর্মসংস্থান হবে বলে জানিয়েছেন সিন্ধিয়া। নয়ডা আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরটি দিল্লির এনসিআর অঞ্চল অবধি বিস্তৃত হবে। নতুন আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের ফলে ইন্দিরা গান্ধী আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের চাপ অনেকটাই কমবে। এটিই দেশের প্রথম সম্পূর্ণ দূষণমুক্ত বিমানবন্দর।

    নয়ডায় আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের শিলান্যাস করে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি এদিন বলেন, ‘‌এই বিমানবন্দরের জন্য উত্তরপ্রদেশের পূর্বাঞ্চলের কোটি কোটি নাগরিক তথা দিল্লি এনসিআরের বাসিন্দারাও উপকৃত হবেন। নতুন এই বিমানবন্দর তৈরি হলে পরিকাঠামোগত উন্নয়নই শুধু নয়, এর ফলে অনেক মানুষের জীবন বদলে যাবে। এই বিমানবন্দর তৈরি হওয়ার ফলে সহজেই দিল্লি, হরিয়ানাতে পৌঁছে যাওয়া যাবে। দেশে বিমান পরিষেবার ক্ষেত্রে যে বিপুল পরিকাঠামোগত উন্নয়ন হচ্ছে, তাতে নয়ডা বিমানবন্দরেরও গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা থাকবে। এই বিমানবন্দর তৈরির ফলে কর্মসংস্থান বাড়বে।’‌ এই বিমানবন্দরে বিমান রাখার ব্যবস্থা থেকে শুরু করে বিমান মেরামতের ব্যবস্থাও থাকবে। এরপর মোদি বলেন, ‘‌২০ বছর আগে উত্তরপ্রদেশের বিজেপি সরকার এই বিমানবন্দর নির্মাণের স্বপ্ন দেখেছিল। সেই স্বপ্ন আজ সার্থক হচ্ছে। এর আগে যাঁরা সরকারে ছিলেন, তাঁরা তৎকালীন কেন্দ্রীয় সরকারকে চিঠি লিখে জানিয়েছিলেন, এখানে বিমানবন্দর দরকার নেই। কিন্তু ডবল ইঞ্জিন সরকারের কাজ করার ফলে এখন ‘উত্তরপ্রদেশ মানেই উত্তম সুবিধা’। 
  • Link to this news (আজকাল)