• হাওড়ার তৃণমূলের সংখ্যালঘু নেতা খুনের অভিযোগ উঠল দলেরই নেত্রীর বিরুদ্ধে
    হিন্দুস্তান টাইমস | ২৬ নভেম্বর ২০২১
  • গত সোমবার নিজের বাড়ির কাছেই দুষ্কৃতীদের গুলিতে নিহত হয়েছিলেন হাওড়ার তৃণমূলের সংখ্যালঘু ছেলের নেতা ওয়াজুল খান। সেই ঘটনায় ইতিমধ্যেই পাঁচজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

    পুলিশের দাবি, তাঁরা সরাসরি এই খুনের ঘটনার সঙ্গে জড়িত ছিল। তবে পুলিশের সেই দাবি মানতে রাজি নন ওয়াজুলের পরিবারের লোকেরা। এবার এই খুনের ঘটনায় জেলারই এক তৃণমূল নেত্রীর বিরুদ্ধে খুনের অভিযোগ আনলেন তাঁর পরিবারের লোকেরা।

    সামনেই রয়েছে পুরভোট। তার আগে তৃণমূলের অভ্যন্তরেই এরকম দ্বন্দ্ব তৈরি হওয়ায় বেশ অস্বস্তিতে পড়েছে তৃণমূল। যাঁর বিরুদ্ধে এই খুনের অভিযোগ উঠেছে সেই তৃণমূল নেত্রীর নাম হল মালতি রায়। তিনি মৌরিগ্রাম ইন্ডিয়ান অয়েল ওয়ার্কার্স অ্যাসোসিয়েশনের নেত্রী। পরিবারের লোকেদের অভিযোগ, তিনি ট্যাঙ্কার মালিকদের কাছ থেকে জোর করে প্রচুর পরিমাণে তোলাবাজি করছিলেন। কিন্তু তাঁর সেই তোলাবাজিকে মোটেই ভালোভাবে নেননি ট্যাঙ্কার মালিকরা। এই তোলাবাজিতে ক্ষুব্ধ হয়ে ওঠেন ট্যাঙ্কার মালিকরা। ঘটনার তাঁরা প্রতিবাদ করেন। তাঁরা নিজেদের অভিযোগ জানান ওয়াজুল খানকে। এরপরেই ট্যাঙ্কার মালিকদের পক্ষে সওয়াল করেন ওয়াজুল।

    তোলাবাজির বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করার পরেই নিজের বাড়ির কাছে আসামাত্রই কয়েকজন দুষ্কৃতী সোমবার রাতে তাঁকে গুলি করেন। রক্তাক্ত অবস্থায় তাঁকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে চিকিৎসকরা মৃত ঘোষণা করেন। যদিও এই খুনের ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগ অস্বীকার করেছেন তৃণমূল নেত্রী মালতি রায়। ইতিমধ্যেই মৃতের পরিবারের লোকেরা জেলা নেতৃত্বের কাছে বিষয়টি জানিয়েছেন। জেলা তৃণমূল কংগ্রেসের সভাপতি কল্যাণ ঘোষ জানিয়েছেন, আইন আইনের পথে চলবে। একইসঙ্গে তিনি বিজেপির বিরুদ্ধে এই খুনের অভিযোগ এনেছেন। যদিও বিজেপির পক্ষ থেকে এই খুনের অভিযোগ অস্বীকার করা হয়েছে।
  • Link to this news (হিন্দুস্তান টাইমস)