• ১১০০ না ২১০০ টাকা, ইলিশের দাম জামাইষষ্ঠীতে কত?
    Aajtak | ১১ জুন ২০২৪
  • ইলিশ মাছ নিয়ে বড় আপডেট। কাল বুধবার জামাইষষ্ঠী। তার আগে ইলিশ মাছের দাম অন্যবারের তুলনায় কমে গেল। প্রতিবার জামাইষষ্ঠীর আগে ইলিশের দাম থেকে ২ থেকে আড়াই হাজার টাকা কেজি। তবে এবার ইলিশের দাম তুলনামূলকভাবে কম। 

    সোমবার কলকাতার একাধিক বাজারে এক কেজি বা তার থেকে অল্প কম ওজনের ইলিশের দাম ছিল ৯০০ থেকে ১ হাজার টাকা। তবে মঙ্গলবার ইলিশের দাম খানিকটা বেড়েছে। মঙ্গলবার সকালে এক কেজি ওজনের ইলিশের দাম ছিল ১১ টাকা মতো। দোকানদাররা জানাচ্ছেন, জামাইষষ্ঠীতে ইলিশের দাম হবে ১১০০ থেকে ১২০০ টাকা। যদিও এই দাম এক কেজি বা তার বেশি ওজনের ক্ষেত্রে প্রযোজ্য। যদি ওজনে তার থেকে কম হয় তাহলে দাম আরও খানিকটা কম। 

    সোমবার ৫০০ থেকে ৬০০ গ্রাম ওজনের ইলিশ মাছের দাম ছিল ৬০০ টাকা কেজি। আজ মঙ্গলবার সেই দাম বেড়েছে। বিকোচ্ছে ৭০০ টাকা কেজি দরে। দোকানদাররা জানালেন, বুধবার ওই ওজনের ইলিশের দাম হতে পারে ৭০০ থেকে ৮০০ টাকা কেজি। প্রসঙ্গত, শিয়ালদা, মানিকতলা, পাতিপুকুর, লেকমার্কেট, গড়িয়াহাট, বালিগঞ্জ বাজারে এই দামে ইলিশ বিক্রি হচ্ছে। তবে কলকাতা বা তার আশপাশের এলাকাতে ইলিশের দাম কেজিতে ২০০ থেকে ৩০০ টাকা বেশি। অর্থাৎ সেই সব বাজারে এক কেজি বা তার থেকে একটু বেশি ওজনের ইলিশের দাম হতে পারে ১৫০০ টাকা। আর ছোটো ইলিশের প্রায় হাজার টাকা। 

    তবে এবার যে ইলিশ বাজারে বিক্রি হচ্ছে তার বেশিরভাগই বার্মা বা মায়ানমার, মুম্বই বা গুজরাতের থেকে আনা৷ বাংলার ইলিশ প্রায় নেই বললেই চলে। সামান্য কিছু পদ্মার ইলিশ রয়েছে। তবে সেগুলো কোল্ড স্টোরেজের। ফলে কোল্ডস্টোরের ইলিশ দিয়েই জামাইয়ের রসনাতৃপ্তি করতে হবে এবছর।

    এবছর গত ১৪ এপ্রিল থেকে পশ্চিমবঙ্গ, ওড়িশা, অন্ধ্রপ্রদেশের উপকূলে সমুদ্রে মাছ ধরায় নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে। ১৫ জুন সেই সময়সীমা শেষ হচ্ছে। তার আগে গভীর সমুদ্রে রওনা দেবে না মাছ ধরার ট্রলারগুলো। সেই ট্রলার ফিরে আসতে আরও দিন দশেক। সুতরাং জনের একদম শেষ সপ্তাহ বা জুলাইয়ের আগে বাঙালির পাতে নতুন ইলিশ পড়ার সম্ভাবনা নেই বললেই চলে। 

    যদিও অন্যবার জামষষ্ঠীর তুলনায় এবছর ইলিশের দাম তুলনামূলকভাবে সস্তা। গতবার এক কেজির নিচে ইলিশের দাম ছিল ১২০০ টাকা। ১ কেজি ২০০ গ্রাম ওজনের ইলিশ বিক্রি হয়েছিল ১৫০০ টাকা বা তার বেশি দরে। সেখানে এবার এক কেজির বেশি ওজনের ইলিশ মিলছে ১২০০ টাকার মধ্যে। 
     
  • Link to this news (Aajtak)