• এক বছরের বেতন দিয়ে ছেলের আমেরিকার টিকিট কেটেছিলেন বাবা! আজ সেই ছেলে গুগলের সিইও
    হিন্দুস্তান টাইমস | ১১ জুন ২০২৪
  • সুন্দর পিচাই, তাঁর গুগল সিও হওয়ার জার্নিটা খুব সহজ ছিল না। নিজেকে এই জায়গায় নিয়ে আসতে প্রচুর কাঠখড় পুরিয়েছিলেন তিনি। সেই গল্পই শেয়ার করেছেন এদিন। তিনি বলেছেন যে তাঁর বাবা তাঁর এক বছরের বেতনের সমপরিমাণ অর্থ তাঁর আমেরিকায় আসার ফ্লাইট টিকিটে ব্যয় করেছিলেন, যাতে তিনি আমেরিকার স্ট্যানফোর্ডে পড়াশোনা করতে পারেন। পিচাইয়ের কথায়, সেই প্রথম আমি বিমানে উঠেছিলাম। বর্তমানে, সুন্দর পিচাইয়ের মোট সম্পদের পরিমাণ ১ বিলিয়ন ডলার অর্থাৎ ৮৩৪২ কোটি টাকা।

    একমাত্র জিনিস যা তাঁকে জীবনে সাফল্য অর্জনে সহায়তা করেছিল তা হল প্রযুক্তির প্রতি তাঁর আবেগ এবং একটি মুক্ত মন। তিনি সবাইকে উন্মুক্ত হতে, অধৈর্য হতে, আশাবাদী হতে আহ্বান জানিয়েছিলেন। তাঁর দাবি ছিল যে যদি আপনি এটি করতে পারেন তবে ইতিহাস আপনাকে মনে রাখবে। আপনি যা হারিয়েছেন তার জন্য নয়, আপনি যা পরিবর্তন করেছেন তার জন্য, আমি আশাবাদী আপনি হবেন। তিনি আরও শেয়ার করেছেন, আমি প্রযুক্তির খুব বেশি অ্যাক্সেস ছাড়াই বড় হয়েছি। আমার দশ বছর বয়স পর্যন্ত আমরা আমাদের প্রথম টেলিফোন পাইনি। গ্রাজুয়েশন স্কুলের জন্য আমেরিকায় না আসা পর্যন্ত আমার কম্পিউটারে নিয়মিত অ্যাক্সেস ছিল না। এবং, আমাদের টেলিভিশন, যখন আমরা অবশেষে একটি পেলাম, তখন শুধুমাত্র একটিই চ্যানেল ছিল।

    ১৯৭২ সালের ১০ জুন জন্মগ্রহণ করেছিলেন সুন্দর পিচাই। ৫২ বছর বয়সে পা দিয়েছেন তিনি। বাবা ছিলেন একজন ইলেকট্রিক্যাল ইঞ্জিনিয়ার এবং তার মা একজন স্টেনোগ্রাফার ছিলেন। তিনি চেন্নাইতে জন্মগ্রহণ করেছিলেন। যেখানে তিনি একটি দুই কক্ষের অ্যাপার্টমেন্টে বড় হয়েছিলেন। ছোট ভাইয়ের সঙ্গে মেঝেতে ঘুমোতেন পিচাই।

    সুন্দর পিচাই আইআইটি খড়গপুর থেকে তাঁর মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং ডিগ্রি শেষ করে, স্ট্যানফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয় থেকে এমএস পদার্থ বিজ্ঞান এবং প্রকৌশল ইঞ্জিনিয়ারিং পর এখন ২০ বছরেরও বেশি সময় ধরে গুগল এ কাজ করেছেন। তিনি পেনসিলভানিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়ার্টন স্কুল থেকে এমবিএ সম্পন্ন করেছিলেন।
  • Link to this news (হিন্দুস্তান টাইমস)