• পাঞ্জাব ভোটের আগেই বড় সিদ্ধান্তের কথা ঘোষণা সোনু সুদের
    দৈনিক স্টেটসম্যান | ১০ জানুয়ারি ২০২২
  • নির্বাচন কমিশন তাঁকে 'রাজ্যের মুখ' হিসেবে বেছে নিয়েছিল। কিন্তু ভোটের ঠিক আগেই সেই গুরু দায়িত্ব থেকে সরে দাঁড়ানোর সিদ্ধান্ত নিলেন সোনু সুদ। 'গরিবের মসিহা' জানিয়ে দিলেন, কমিশনের সঙ্গে আলোচনার পরই পাঞ্জাবের ‘স্টেট আইকনে’র পদ ছাড়ছেন তিনি।

    প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির নিরাপত্তা ইস্যু নিয়ে বর্তমানে শিরোনামে পাঞ্জাব। ভোটের আগে সে রাজ্যে যেভাবে মোদির নিরাপত্তায় গাফিলতির ছবি উঠে এসেছে, তাতে তীব্র সমালোচিত সে রাজ্যের সরকার।

    এরপরই টুইট করে বলিউড অভিনেতা সোনু জানালেন, তিনি আর পাঞ্জাবের স্টেট আইকন থাকছেন না। যদিও মোদির নিরাপত্তার গলদের সঙ্গে তাঁর সিদ্ধান্তের কোনও সম্পর্ক নেই।

    সোনু জানান, সব ভাল জিনিসেরই সমাপ্তি হয়। আমি স্বেচ্ছায় পাঞ্জাবের স্টেট আইকনের ছাড়লাম। নির্বাচন কমিশনের সঙ্গে আলোচনা করেই এই সিদ্ধান্ত নিয়েছি। কারণ এবার বিধানসভা ভোটে আমার পরিবারের সদস্য অংশ নেবে। সকলের জন্য শুভেচ্ছা রইল। এর আগে নির্বাচন কমিশনও টুইটারে সোনু সুদের নাম তুলে নেওয়ার কথা জানায়।

    পাঞ্জাবের মোগা জেলা থেকে আসা বলিউডের খলনায়ক সোনু সুদকে গত বছরই রাজ্যের মুখ বা আইকন হিসেবে বেছে নিয়েছিল নির্বাচন কমিশন। তবে গত নভেম্বরে সোনু জানান, তাঁর বোন মালবিকা সুদ রাজনীতিতে পা রাখছেন এবং পাঞ্জাব ভোটেও লড়বেন।

    এই কারণেই মূলত সরে দাঁড়ালেন তিনি। সম্প্রতি পাঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী চরণজিৎ সিং চান্নির সঙ্গে সাক্ষাৎ করেছিলেন সোনু। তারপরই এই সিদ্ধান্তের কথা টুইট করলেন।

    প্রসঙ্গত, অরবিন্দ কেজরিওয়ালের আম আদমি পার্টির সঙ্গেও যুক্ত সোনু। যে দল আবার পাঞ্জাব নির্বাচনে কড়া টক্কর দিতে প্রস্তুত কংগ্রেসকে। গত বছর সোনুকে স্কুল পড়ুয়াদের জন্য তৈরি কর্মসূচি ‘দেশ কা মেন্টর্স'-এর ব্র্যান্ড অ্যাম্বাস্যাডর করেছিল আপ। কেজরিওয়ালের সঙ্গে সোনুর সাক্ষাৎ ঘিরেও তৈরি হয়েছিল জোর জল্পনা। তবে সেসব বিশেষ আমল দেননি অভিনেতা।
  • Link to this news (দৈনিক স্টেটসম্যান)