• স্ট্যাম্প মাইকে সম্প্রচারকারী চ্যানেলকে তুলোধোনা! কোহলিদের সতর্ক করা হল হারের পরে
    ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস | ১৫ জানুয়ারি ২০২২
  • ভারতীয় ক্যাপ্টেন বিরাট কোহলি এবং টিম ম্যানেজমেন্টকে মৌখিকভাবে এবার সতর্ক করা হল স্ট্যাম্প মাইক ইস্যুতে। তৃতীয় টেস্টের তৃতীয় দিনে ডিন এলগার ডিআরএসে বেঁচে যাওয়ার পরে স্ট্যাম্প মাইকে ক্ষোভের বিস্ফোরণ ঘটান কোহলি-অশ্বিনরা।

    দক্ষিণ আফ্রিকার দ্বিতীয় ইনিংস চলাকালীন ২৭তম ওভারের ঘটনা। সেই সময় দক্ষিণ আফ্রিকান অধিনায়ক ডিন এলগারকে বোলিং করছিলেন অশ্বিন। এমন সময়ে উইকেটের সামনে অশ্বিনের বল আছড়ে পড়ে এলগারের প্যাডে। আবেদনে যথারীতি সাড়াও দিয়ে দেন মরিস ইরাসমাস। তবে নন স্ট্রাইকিং এন্ডে দাঁড়িয়ে থাকা কিগান পিটারসেনের সঙ্গে আলোচনা করে রিভিউয়ের সিদ্ধান্ত নেন এলগার।

    তবে হক আই-য়ে দেখা যায় বলে লেগ স্ট্যাম্পের বাইরে দিয়ে বাউন্স করে বেরিয়ে যাচ্ছে। এতেই জীবন পেয়ে যান এলগার। এরপরেই ক্ষোভে ফেটে পড়েন টিম ইন্ডিয়ার তারকারা। ব্রডকাস্টার সুপারস্পোর্টস-কে তুলোধোনা করে বসেন কোহলি-অশ্বিনরা।

    কোহলিকে স্ট্যাম্প মাইকে বলতে শোনা যায়, “প্রতিপক্ষ নয়, নিজের দলের ক্রিকেটারদের দেখানোরও চেষ্টা করো। সবসময় বিপক্ষের ওপর ফোকাস করা বন্ধ কর।” স্ট্যাম্প মাইকে এরকমই বলতে শোনা যায় কোহলিকে। বল ট্র্যাকিং সিস্টেমে যে ছবি দেখানো হয়েছে, তা ভুল, এমন অভিযোগ করেন কেএল রাহুল, রবিচন্দ্রন অশ্বিনও।

    এমন বিতর্কবিদ্ধ দিনের শেষে বোলিং কোচ পরশ মামরেও দলকে ডিফেন্ড করে বলে যান, “এটা আপনারাও দেখেছেন। আমরাও দেখেছি। পুরো বিষয়টা ম্যাচ রেফারির ওপর ছেড়ে দিলাম। এই নিয়ে নতুন করে কোনও মন্তব্য করব না। আপাতত আমরা খেলায় ফোকাস করছি।”

    “দলের প্রত্যেকেই নিজেদের সেরাটা দেওয়ার চেষ্টা করছে। কখনও কখনও পরিস্থিতির তোয়াক্কা না করে কেউ কিছু বলে থাকতেই পারে। এমনটা হতেই পারে। এটাই খেলা। সকলের নিজেদের সেরাটা দেওয়ার সময় আবেগ এভাবে বেরিয়ে আসতে পারে।”

    এলগার সেই বিতর্কের পরে বেশিক্ষণ না টিকলেও প্রোটিয়াজরা ম্যাচ বের করে নেন চতুর্থ দিনে দেড়খানা সেশনের মধ্যে। কিগান পিটারসেন ৮২, ডুসেন ৪১ এবং তেম্বা বাভুমা ৩২ করে দলকে ৭ উইকেটে জিতিয়ে দেন।

    ভারতের এই হারে দক্ষিণ আফ্রিকার মাটিতে সিরিজ জয় অপূর্ণই থাকল।
  • Link to this news (ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস)