• ‘মেরি কমের বায়োপিক অন্য কারও করা উচিত ছিল’, এতদিন পর স্বীকার করলেন প্রিয়াঙ্কা
    ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস | ১৫ জানুয়ারি ২০২২
  • ২০১৪ সালে মেরি কমের বায়োপিকে অভিনয় করে সমালোচকদের প্রশংসা কুড়িয়েছিলেন প্রিয়াঙ্কা চোপড়া। সেই ছবি বক্স অফিসেও ভাল আয় করেছিল। কিন্তু যে ছবিতে অভিনয়ের জন্য সিনে সমালোচকদের এত প্রশংসা কুড়িয়েছিলেন তিনি, এবার সেই ছবি প্রসঙ্গেই অভিনেত্রীর মত, “মেরি কমের ভূমিকায় অন্য কাউকে কাস্ট করা উচিত ছিল।” মুক্তির এতবছর পর কেন এমন স্বীকারোক্তি প্রিয়াঙ্কার?

    সম্প্রতি এক সাক্ষাৎকারে প্রিয়াঙ্কা চোপড়া জানান, “মেরি কমের চরিত্রে উত্তর-পূর্ব ভারতের কোনও নায়িকাকেই কাস্ট করা উচিত ছিল।” মণিপুরের বক্সিং চ্যাম্পিয়ন ভূমিকন্যার চেহারার সঙ্গে প্রিয়াঙ্কার মুখের গড়নের কোনও মিল নেই।

    দেশি গার্ল খোদ বলছেন, “আমি একেবারেই ওঁর মতো দেখতে নই। ওই চরিত্রের জন্য নর্থ-ইস্টের কাউকেই বেছে নেওয়া উচিত ছিল, তাহলে অন্তত চেহারায় সাদৃশ্য বজায় থাকত। কিন্তু হ্যাঁ, রিলিজের এত বছর পরও ওই সিনেমা আমার মনের মণিকোঠায় রয়েছে। কারণ, মেরি কমের চরিত্রে অভিনয় করার সময় আমি অনেক বক্সারের সঙ্গে সময় কাটাতে পেরেছি। তবে অভিনেত্রী হিসেবে মেরির চরিত্রে অভিনয়ের সুযোগ হাতছাড়া করতে চাইনি। একজন মহিলা হিসেবে ও আমাকে সবসময়ে অনুপ্রেরণা জুগিয়েছেন।”

    প্রসঙ্গত, মেরি কমের বায়োপিকে প্রিয়াঙ্কার কাস্টিং নিয়ে সেইসময়ও কম জলঘোলা হয়নি। প্রতিবাদ করেছিলেন উত্তর-পূর্ব ভারতের দর্শকমহলের একাংশ। তবে ছবিতে নিজের পারফরম্যান্সের মধ্য দিয়েই সমালোচকদের মুখ বন্ধ করে দিয়েছিলেন দেশি গার্ল। মেরি কমের ভূমিকায় অভিনয় করার আগে বক্সারের মণিপুরের গ্রামের বাড়িতে গিয়ে সময় কাটিয়েছিলেন প্রিয়াঙ্কা। কম কাঠখড় পোড়াতে হয়নি তাঁর জীবন সংগ্রাম আত্মস্থ করতে। প্রিয়াঙ্কার কসরত ধরা পড়েছিল পর্দাতেও। তবে সেই সিনেমা রিলিজের ৮ বছর পর অভিনেত্রীর স্বীকারোক্তি- “মেরি কমের বায়োপিক অন্য কারও করা উচিত ছিল।”
  • Link to this news (ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস)