• দুবাইয়ে ভারতগামী দুই বিমান একই রানওয়েতেরিপোর্ট তলব করল ডিজিসিআই
    বর্তমান | ১৫ জানুয়ারি ২০২২
  • নয়াদিল্লি: ঘটনাটি ঘটেছিল দুবাই আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে। একই রানওয়েতে অল্পের জন্য সংঘর্ষ এড়িয়ে গিয়েছিল ভারতগামী দু’টি উড়ান। সেই ঘটনার তদন্তের অগ্রগতি সম্পর্কে জানতে চাইল ভারতের বিমান পরিবহণে নজরদার সংস্থা ‘ডিরেক্টর জেনারেল অব সিভিল অ্যাভিয়েশন (ডিজিসিআই)। তদন্ত রিপোর্টের একটি কপিও জমা দিতে বলা হয়েছে। কারণ, বোয়িং-৭৭৭ বিমান দু’টি এমিরেটস এয়ার’-এর হলেও তাদের গন্তব্য ছিল ভারত। একটি হায়দরাবাদের উদ্দেশে রওনা দিয়েছিল। অন্যটির গন্তব্য ছিল বেঙ্গালুরু। 

    ঠিক কী ঘটেছিল দুবাই বিমানবন্দরে। সূত্রের খবর, গত ৯ জানুয়ারি হায়দরাবাদগামী বিমানটি আকাশে ওড়ার জন্য সবে দৌড় শুরু করেছে। ঠিক তখনই বেঙ্গালুরুগামী বিমানও নির্দিষ্ট সময় মেনে দৌড় শুরু করে। সেই মুহূর্তে দু’টি বিমানেরই গতি ছিল ঘণ্টায় প্রায় ২৪০ কিমি। পাইলটের দক্ষতায় হায়দরাবাদগামী বিমানটি রানওয়ে ছাড়ার ৭৯০ মিটার আগে দাঁড়িয়ে পড়ে। তাতেই ভয়াবহ দুর্ঘটনার হাত থেকে বেঁচে যান দু’টি বিমানেরই প্রায় শতাধিক যাত্রী। এখানেই প্রশ্ন উঠেছে, একই সময়ে দু’টি বিমানকে টেক-অফ করার ছাড়পত্র দেওয়া হল কেন? নিয়ম অনুযায়ী, দু’টি বিমানের ওড়ার মধ্যবর্তী সময়ের ফাঁক থাকে কম করে পাঁচ মিনিট। এক্ষেত্রে সেই নিয়ম মানা হয়নি বলে অভিযোগ। যদিও দুবাই বিমান বন্দর কর্তৃপক্ষের দাবি, উড়ানের ওঠা-নামার পুরো প্রক্রিয়াটি তদারকি করে এয়ার ট্রাফিক কট্রোল। 

    ঘটনাটির গুরুত্ব বুঝে তড়িঘড়ি তদন্তের নির্দেশ দেয় সৌদি সরকার। কারণ, এর পিছনে যাত্রী সুরক্ষায় চূড়ান্ত গাফিলতির অভিযোগ উঠেছে। তদন্তের ভার দেওয়া হয় বিমান দুর্ঘটনার তদন্তে পারদর্শী কমিটিকে। পাশাপাশি, পাইলট সহ বিমানকর্মীদের ভূমিকাও খতিয়ে দেখতে অভ্যন্তরীণ তদন্ত চালাচ্ছে সংশ্লিষ্ট বিমান পরিবহণ সংস্থা। সূত্রের খবর, ঘটনাটি দুবাইয়ে ঘটেছে বলে এর দায় এড়াতে পারে না ডিজিসিআইও। কারণ, এমিরেটসের ওই বোয়িং বিমান দু’টি তাদের রেজিস্ট্রিকৃত। এবং দু’টির গন্তব্যও ছিল ভারত। তাই তদন্তের গতিপ্রকৃতি জানার এক্তিয়ারও ডিজিসিআইয়ের রয়েছে। সেই সূত্রে তদন্তের রিপোর্ট শেয়ার করতে বলা হয়েছে। 
  • Link to this news (বর্তমান)