• 'কলঙ্কিত মাতাল', বনগাঁ লোকালে BJP নেতার নামে কুরুচিকর পোস্টার
    এই সময় | ১৫ জানুয়ারি ২০২২
  • এই সময় ডিজিটাল ডেস্ক: BJP নেতার নামে কুরুচিকর পোস্টার ডাউন বনগাঁ-শিয়ালদহ লোকালে। আলোড়ন রাজ্য রাজনীতিতে। গোরু পাচারের সঙ্গে যুক্ত থাকার অভিযোগের পাশাপাশি 'কলঙ্কিত মাতাল' সহ একাধিক কুকথা লেখা হয়েছে BJP-র সাধারণ সম্পাদক (‌সংগঠন)‌ অমিতাভ চক্রবর্তীর নামে। রাজ্য BJP-র হেভিওয়েট নেতার নামে ট্রেনে এই পোস্টার পড়াকে ঘিরে ছড়িয়েছে চাঞ্চল্য। গেরুয়া শিবিরের সাফ দাবি, নেতা তথা দলের ভাবমূর্তিকে কালিমালিপ্ত করার জন্য এই 'চক্রান্ত' করেছে বিরোধী দল। যদিও তৃণমূলের তরফে স্পষ্ট দাবি করা হয়, এই পোস্টার সাঁটানোর সঙ্গে তাদের কোনও সম্পর্ক নেই। ঘটনাটিকে সাধারণ মানুষের ক্ষোভের বহিপ্রকাশ বলে আখ্যা দিচ্ছেন তৃণমূল নেতাদের একাংশ।

    এই পোস্টার ঘিরেই হইচই

    ঘটনাটি ঠিক কী?

    শুক্রবার ডাউন বনগাঁ-শিয়ালদা লোকাল বারাসত জংশনে প্রবেশ করার পর দেখা যায় ট্রেনটির কামরায় BJP নেতা অমিতাভ চক্রবর্তীর নামে কুরুচিকর মন্তব্যপূর্ণ পোস্টার সাঁটানো রয়েছে। ট্রেনটির বারাসতে প্রবেশের সময় ছিল ৯টা ৪০মিনিট। কিন্তু, এদিন ১৫ মিনিট দেরিতে ট্রেনটি স্টেশনে প্রবেশ করে। এই পোস্টারে অমিতাভ চক্রবর্তীর বিরুদ্ধে একগুচ্ছ অভিযোগ তোলা হয়েছে। এমনকী, তাঁকে অপসারণ এবং গ্রেফতারের দাবিও করা হয় পোস্টারে।

    এই পোস্টার ঘিরেই হইচই

    ঘটনাটি ঠিক কী?

    শুক্রবার ডাউন বনগাঁ-শিয়ালদা লোকাল বারাসত জংশনে প্রবেশ করার পর দেখা যায় ট্রেনটির কামরায় BJP নেতা অমিতাভ চক্রবর্তীর নামে কুরুচিকর মন্তব্যপূর্ণ পোস্টার সাঁটানো রয়েছে। ট্রেনটির বারাসতে প্রবেশের সময় ছিল ৯টা ৪০মিনিট। কিন্তু, এদিন ১৫ মিনিট দেরিতে ট্রেনটি স্টেশনে প্রবেশ করে। এই পোস্টারে অমিতাভ চক্রবর্তীর বিরুদ্ধে একগুচ্ছ অভিযোগ তোলা হয়েছে। এমনকী, তাঁকে অপসারণ এবং গ্রেফতারের দাবিও করা হয় পোস্টারে।

    এই পোস্টার ঘিরেই হইচই

    ঘটনাটি ঠিক কী?

    শুক্রবার ডাউন বনগাঁ-শিয়ালদা লোকাল বারাসত জংশনে প্রবেশ করার পর দেখা যায় ট্রেনটির কামরায় BJP নেতা অমিতাভ চক্রবর্তীর নামে কুরুচিকর মন্তব্যপূর্ণ পোস্টার সাঁটানো রয়েছে। ট্রেনটির বারাসতে প্রবেশের সময় ছিল ৯টা ৪০মিনিট। কিন্তু, এদিন ১৫ মিনিট দেরিতে ট্রেনটি স্টেশনে প্রবেশ করে। এই পোস্টারে অমিতাভ চক্রবর্তীর বিরুদ্ধে একগুচ্ছ অভিযোগ তোলা হয়েছে। এমনকী, তাঁকে অপসারণ এবং গ্রেফতারের দাবিও করা হয় পোস্টারে।

    এই পোস্টার ঘিরেই হইচই

    ঘটনাটি ঠিক কী?

    শুক্রবার ডাউন বনগাঁ-শিয়ালদা লোকাল বারাসত জংশনে প্রবেশ করার পর দেখা যায় ট্রেনটির কামরায় BJP নেতা অমিতাভ চক্রবর্তীর নামে কুরুচিকর মন্তব্যপূর্ণ পোস্টার সাঁটানো রয়েছে। ট্রেনটির বারাসতে প্রবেশের সময় ছিল ৯টা ৪০মিনিট। কিন্তু, এদিন ১৫ মিনিট দেরিতে ট্রেনটি স্টেশনে প্রবেশ করে। এই পোস্টারে অমিতাভ চক্রবর্তীর বিরুদ্ধে একগুচ্ছ অভিযোগ তোলা হয়েছে। এমনকী, তাঁকে অপসারণ এবং গ্রেফতারের দাবিও করা হয় পোস্টারে।

    এই পোস্টার ঘিরেই হইচই

    ঘটনাটি ঠিক কী?

    শুক্রবার ডাউন বনগাঁ-শিয়ালদা লোকাল বারাসত জংশনে প্রবেশ করার পর দেখা যায় ট্রেনটির কামরায় BJP নেতা অমিতাভ চক্রবর্তীর নামে কুরুচিকর মন্তব্যপূর্ণ পোস্টার সাঁটানো রয়েছে। ট্রেনটির বারাসতে প্রবেশের সময় ছিল ৯টা ৪০মিনিট। কিন্তু, এদিন ১৫ মিনিট দেরিতে ট্রেনটি স্টেশনে প্রবেশ করে। এই পোস্টারে অমিতাভ চক্রবর্তীর বিরুদ্ধে একগুচ্ছ অভিযোগ তোলা হয়েছে। এমনকী, তাঁকে অপসারণ এবং গ্রেফতারের দাবিও করা হয় পোস্টারে।

    এই পোস্টার ঘিরেই হইচই

    ঘটনাটি ঠিক কী?

    শুক্রবার ডাউন বনগাঁ-শিয়ালদা লোকাল বারাসত জংশনে প্রবেশ করার পর দেখা যায় ট্রেনটির কামরায় BJP নেতা অমিতাভ চক্রবর্তীর নামে কুরুচিকর মন্তব্যপূর্ণ পোস্টার সাঁটানো রয়েছে। ট্রেনটির বারাসতে প্রবেশের সময় ছিল ৯টা ৪০মিনিট। কিন্তু, এদিন ১৫ মিনিট দেরিতে ট্রেনটি স্টেশনে প্রবেশ করে। এই পোস্টারে অমিতাভ চক্রবর্তীর বিরুদ্ধে একগুচ্ছ অভিযোগ তোলা হয়েছে। এমনকী, তাঁকে অপসারণ এবং গ্রেফতারের দাবিও করা হয় পোস্টারে।

    এই পোস্টার ঘিরেই হইচই

    ঘটনাটি ঠিক কী?

    শুক্রবার ডাউন বনগাঁ-শিয়ালদা লোকাল বারাসত জংশনে প্রবেশ করার পর দেখা যায় ট্রেনটির কামরায় BJP নেতা অমিতাভ চক্রবর্তীর নামে কুরুচিকর মন্তব্যপূর্ণ পোস্টার সাঁটানো রয়েছে। ট্রেনটির বারাসতে প্রবেশের সময় ছিল ৯টা ৪০মিনিট। কিন্তু, এদিন ১৫ মিনিট দেরিতে ট্রেনটি স্টেশনে প্রবেশ করে। এই পোস্টারে অমিতাভ চক্রবর্তীর বিরুদ্ধে একগুচ্ছ অভিযোগ তোলা হয়েছে। এমনকী, তাঁকে অপসারণ এবং গ্রেফতারের দাবিও করা হয় পোস্টারে।

    এই পোস্টার ঘিরেই হইচই

    ঘটনাটি ঠিক কী?

    শুক্রবার ডাউন বনগাঁ-শিয়ালদা লোকাল বারাসত জংশনে প্রবেশ করার পর দেখা যায় ট্রেনটির কামরায় BJP নেতা অমিতাভ চক্রবর্তীর নামে কুরুচিকর মন্তব্যপূর্ণ পোস্টার সাঁটানো রয়েছে। ট্রেনটির বারাসতে প্রবেশের সময় ছিল ৯টা ৪০মিনিট। কিন্তু, এদিন ১৫ মিনিট দেরিতে ট্রেনটি স্টেশনে প্রবেশ করে। এই পোস্টারে অমিতাভ চক্রবর্তীর বিরুদ্ধে একগুচ্ছ অভিযোগ তোলা হয়েছে। এমনকী, তাঁকে অপসারণ এবং গ্রেফতারের দাবিও করা হয় পোস্টারে।

    'শ্রীরামপুর নতুন সাংসদ চায়', কল্যাণকে বিঁধলেন এবার অভিষেকের ভাই

    বিষয়টি সামনে আসার পরেই প্রশ্ন উঠতে শুরু করে, কে বা কারা এই ঘটনার সঙ্গে যুক্ত? এই বিষয়ে জেলা BJP-র নেতারা মুখ খুলতে চাননি। ইতিমধ্যেই বিষয়টি নিয়ে রাজ্য শাসক দলের সঙ্গে BJP-র তরজা শুরু হয়েছে। গেরুয়া শিবিরের নেতাদের একাংশের দাবি BJP-র ভাবমূর্তি ক্ষতিগ্রস্ত করতে এই কাজ করেছেন শাসক দলের নেতারা। যদিও এই ঘটনায় গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব এবং সাধারণ মানুষের ক্ষোভের বহিঃপ্রকাশ দেখছেন তৃণমূল নেতাদের একাংশ।

    অভিষেক কি রাজনীতিতে ভিন্ন বয়ান তৈরি করছেন?

    জেলার শাসক দলের নেতাদের দাবি, এই ঘটনার সঙ্গে তৃণমূলের কোনও যোগাযোগ নেই। BJP-র গোষ্ঠী দ্বন্দ্ব এর জন্য দায়ী। তৃণমূলের অপর এক মহলের মন্তব্য, হতে পারে সাধারণ মানুষ ক্ষোভের বহিঃপ্রকাশ করেছেন এইভাবে। ঘটনায় শুরু হয়েছে তোলপাড়। বিষয়টি নিয়ে অমিতাভ চক্রবর্তীর সঙ্গে ফোনে যোগাযোগ করার চেষ্টা করা হলেও কোনও জবাব পাওয়া যায়নি। অন্যদিকে, BJP নেতা জয়প্রকাশ মজুমদার এই সময় ডিজিটাল-কে বলেন, ‘বিষয়টি নিয়ে আমার কিছু জানা নেই। তাই এই প্রসঙ্গে মন্তব্য করব না।’

    পশ্চিমঙ্গের আরও খবরের জন্য ক্লিক করুন। প্রতি মুহূর্তে খবরের আপডেটের জন্য চোখ রাখুন এই সময় ডিজিটালে।
  • Link to this news (এই সময়)