• লাগামছাড়া সংক্রমণ, দেশে একদিনে করোনা আক্রান্ত ২ লক্ষ ৬৮ হাজারেরও বেশি
    ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস | ১৫ জানুয়ারি ২০২২
  • করোনার তৃতীয় ঢেউয়ে তোলপাড় দেশ। গতকালের চেয়ে দৈনিক সংক্রমণ বাড়ল সাড়ে ৪ হাজারেরও বেশি। পাল্লা দিয়ে বেড়েছে ওমিক্রন আক্রান্তের সংখ্যাও। ঊর্ধ্বমুখী করোনা পজিটিভিটি রেট। পশ্চিমবঙ্গ, দিল্লি, মহারাষ্ট্রের মতো রাজ্যগুলির সংক্রমণ পরিস্থিতি নিয়ে ঘোর উদ্বেগে কেন্দ্র।

    গতকালের চেয়ে আরও বাড়ল দেশের দৈনিক সংক্রমণ। স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রকের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে নতুন করে করোনা আক্রান্ত হলেন ২ লক্ষ ৬৮ হাজার ৮৩৩ জন। এই মুহূর্তে দেশে করোনা সক্রিয় রোগীর সংখ্যা বেড়ে ১৪ লক্ষ ১৭ হাজার ৮২০ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় করোনামুক্ত হয়েছেন ১ লক্ষ ২২ হাজার ৬৮৪ জন। গতকালের চেয়ে বেড়েছে ডেইলি করোনা পজিটিভিটি রেটও। ১৪.৭ শতাংশ থেকে বেড়ে করোনা পজিটিভিটি রেট হয়েছে ১৬.৬৬ শতাংশ। দেশে ওমিক্রন আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ৬,০৪১।

    দেশের বড় শহরগুলির সংক্রমণ পরিস্থিতি এখনও উদ্বেগজনক। বাণিজ্যনগরী মুম্বইয়ে গতকাল নতুন করে ১১ হাজার ৩১৭ জন করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। মুম্বইয়ের করোনা পজিটিভিটি রেট ২০ শতাংশ থেকে বেড়ে হয়েছে ২১.৭৩ শতাংশ।

    গতকাল মহারাষ্ট্রে মোট ৪৩ হাজার ২১১ জন নতুন করে করোনা আক্রান্ত হয়েছেন, মৃত্যু হয়েছে ১৯ জনের। রাজধানী দিল্লিতে গতকাল নতুন করে করোনা আক্রান্ত হয়েছেন ২৪ হাজার ৩৮৩ জন। বৃহস্পতিবারের চেয়ে শুক্রবার প্রায় ৪ হাজার কমেছে দিল্লির দৈনিক সংক্রমণ।

    এই মুহূর্তে দেশের মধ্যে যে রাজ্যগুলিতে সংক্রমণ পরিস্থিতি উদ্বেগজনক, তাদের মধ্যে অন্যতম পশ্চিমবঙ্গ। যদিও গতকাল বাংলায় দৈনিক সংক্রমণ খানিকটা কমেছে। শুক্রবার বাংলায় নতুন করে করোনা আক্রান্ত হয়েছেন ২২ হাজার ৬৪৫ জন। একদিনে মৃত্যু হয়েছে ২৮ জনের।

    এদিকে, করোনার তৃতীয় ঢেউয়ের মধ্যেই পশ্চিমবঙ্গে চলছে গঙ্গাসাগর মেলা। লক্ষ-লক্ষ পুন্যার্থী পৌঁছেছেন সাগরদ্বীপে। শুক্রবার থেকেই শুরু হয়েছে পুন্যস্নান। শনিবার গঙ্গাসাগরে আরও বেশি ভক্তের সমাগম হতে পারে বলে মনে করছেন প্রশাসনের কর্তারা।
  • Link to this news (ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস)