• মাদক কারবারী ও পুলিশের গুলির লড়াইতে অগ্নিগর্ভ মালদহ, মৃত্যু নিরীহ যুবকের
    প্রতিদিন | ১৫ জানুয়ারি ২০২২
  • বাবুল হক, মালদহ: মাদক কারবারীদের গুলিতে জখম যুবকের মৃত্যু। শুক্রবার সন্ধেয় মাদক কারবারীদের বিরুদ্ধে অভিযানে যায় কালিয়াচক থানার পুলিশ। সেই সময় পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি চালায় মাদক কারবারীরা। মাদক কারবারীদের চালানো গুলিতে পথচলতি স্থানীয় যুবক রাজীব ওরফে রাজু শেখ জখম হয়। পেটে গুলি লাগে তাঁর। গুরুতর জখম অবস্থায় তাঁকে মালদহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভরতি করা হয়। শনিবার তাঁর মৃত্যু হয়।

    পুলিশ জানিয়েছে, কালিয়াচকের বালিয়াডাঙ্গা এলাকায় বিডিও অফিসের পিছনের একটি আমবাগানে বিকেল চারটে নাগাদ দু'জন মাদক কারবারি জড়ো হয়। তারা ব্রাউন সুগারের লেনদেন করছিল। আগাম খবর পেয়ে পুলিশ ওই এলাকায় ওঁত পেতেছিল। পুলিশ দু'টি দলে ভাগ হয়ে যায়। একটি দলে পুলিশ ছিল সাদা পোশাকে। আরেক দল এলাকা ঘিরে রেখেছিল। ব্রাউন সুগার উদ্ধার করতে গিয়ে পুলিশকে আক্রান্ত হতে হয়। মাদক কারবারিরা পুলিশকে লক্ষ্য করে সেভেন এমএম রিভলবার উঁচিয়ে গুলি চালায়। ঘটনাস্থলেই গুলিবিদ্ধ হন স্থানীয় স্থানীয় যুবক রাজীব ওরফে রাজু শেখ। তিনি বৈষ্ণবনগর থানার কুম্ভিরা এলাকার বাসিন্দা। আহতকে মালদহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভরতি করা হয়। তাঁর পেটে গুলি লাগে। শনিবার ভোরে মৃত্যু হয় রাজুর।

    মালদহের পুলিশ সুপার অমিতাভ মাইতি বলেন, 'দু'জনের বাড়ির মধ্যে নিষিদ্ধ মাদকের লেনদেন চলছিল। গোপন সূত্রে পাওয়া খবরের ভিত্তিতে পুলিশ সেখানে অভিযান চালায়। তখনই পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি চালায় এক দুষ্কৃতী। এই ঘটনায় একজনকে গ্রেপ্তার করা সম্ভব হয়েছে। ধৃতের নাম আসমাউল শেখ। বাড়ি কালিয়াচকের কলেজ মোড় এলাকা। কুখ্যাত মাদক ব্যবসায়ী হিসাবে এলাকায় পরিচিত সে। তার কাছ থেকে ৪০০ গ্রাম ব্রাউন সুগার ও একটি সেভেন এমএম পিস্তল বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে।'

    পলাতক দুষ্কৃতী সাহাবুদ্দিনের বাড়ি কালিয়াচকের চাঁদপুরের হাজিনগর গ্রামে। তার খোঁজ চালাচ্ছে পুলিশ। পুলিশ সুপার জানিয়েছেন, কালিয়াচকে বেআইনি মাদক কারবারীদের বাড়বাড়ন্ত। মাদক কারবারীদের ধরপাকড়ে অভিযান চলছে।
  • Link to this news (প্রতিদিন)