• আড়াই টাকায় চিকেন পকোড়া! কলকাতার কোথায় রয়েছে এই দোকান?
    এই সময় | ১৫ জানুয়ারি ২০২২
  • এই সময় ডিজিটাল ডেস্ক: আড়াই টাকার চিকেন পকোড়া। তাও আবার কলকাতায়। রাতারাতি ভাইরাল হয়েছেন বিক্রেতা। উপচে পড়া ভিড় দোকানে। খদ্দের সামলাতে হিমশিম খেতে হচ্ছে মহিলাকে। নিমেষে ফুরোচ্ছে পকোড়া। শহরের কোথায় গেলে পাবেন এই আড়াই টাকার চিকেন পকোড়া?

    ঢাকুরিয়া ব্রিজ সংলগ্ন এলাকায় দীর্ঘদিন ধরে ভাতের হোটেল চালাতেন লক্ষ্মী মণ্ডল। কিন্তু, ভাতের হোটেলের পাশাপাশি পকোড়ার দোকান দেওয়ার কথা চিন্তা করেন তিনি। তখনও ভাবেননি রাতারাতি ভাইরাল হতে চলেছেন তিনি। ঢাকুরিয়া রেল করোনির বাসিন্দা বছর ৫০-এর লক্ষ্মী বলেন, ‘প্রথম যেদিন পকোড়ার দোকান দিই সেদিন এলাকার স্থানীয় কিছু ছেলে মেয়েরা আমার কাছে আবদার করেছিল পকোড়ার দাম আড়াই টাকা রাখতে। তাদের আবদার মেনেই দামটা ঠিক করি।’ তবে রাতারাতি যে তিনি ‘ফেমাস’ হয়ে যাবেন, তা স্বপ্নেও ভাবেননি তিনি। লক্ষ্মী বলেন, ‘আমার কাছে ফোন নেই। ছেলে আমাকে দেখিয়েছিল আমাদের দোকানের ছবি নাকি নেটে ঘুরছে।’ তিনি জানান, চিকেন, ধনে পাতা দিয়ে তিনি পকোড়া তৈরি করেন। দাম ‘মাত্র আড়াই টাকা।’ এখনই দাম বাড়ানোর কোনও পরিকল্পনা নেই বলেও জানান তিনি।

    এদিকে রাতারাতি জনপ্রিয়তায় খদ্দেরও বেড়েছে লক্ষ্মীর দোকানে। মুহূর্তে ফুরিয়ে যাচ্ছে পকোড়া। লক্ষ্মী বলেন, ‘এত বেশি লোকজন আসছে যে অনেক সময় পকোড়ার জোগান দিতে পারছি না। একটু সন্ধ্যা গড়ালেই সবাইকে ফিরিয়ে দিতে হচ্ছে।’ তবে কি ব্যবসা বাড়াবেন তিনি? লক্ষ্মী জানান, তাঁর ভরা সংসার। দুই ছেলে, বৌমা, নাতি রয়েছে বাড়িতে। প্রত্যেকেই তাঁকে অত্যন্ত সম্মান করেন। নিতান্তই ব্যস্ত থাকার জন্য পকোড়ার দোকান দিয়েছেন তিনি। এদিকে শরীরকে কাবু করেছে বয়স। ফলে এখনই ব্যবসা বাড়ানোর কথা ভাবছেন না, স্পষ্ট জানিয়ে দেন লক্ষ্মী।

    অন্যদিকে, এই আড়াই টাকার পকোড়ার স্বাদে মজে শহরের বাসিন্দারা। অমিতা রায় নামক এক তরুণী বন্ধুকে সঙ্গে নিয়ে এসেছিলেন পকোড়ার স্বাদ নিতে। তিনি বলেন, ‘এত ভালো পকোড়া, তাও মাত্র আড়াই টাকায়। অনেকেই মনে করতে পারেন চিন্তাভাবনার বাইরে। এটা বোধহয় কলকাতাতেই সম্ভব।’ এদিকে সুনাম পাওয়ার পর দায়িত্ব বেড়ে গিয়েছে বেশ কয়েক গুণ, এমনটাই জানিয়েছেন লক্ষ্ণী। তিনি জানান, কোনওভাবেই যাতে খাবারের মান না পড়ে সেই দিকে চালাচ্ছেন কড়া নজরদারি।

    কলকাতার আরও খবরের জন্য ক্লিক করুন। প্রতি মুহূর্তে খবরের আপডেটের জন্য চোখ রাখুন এই সময় ডিজিটালে।
  • Link to this news (এই সময়)