• দেশে নিম্নমুখী করোনার অ্যাকটিভ কেস, দেওয়া হল ১৯১ কোটিরও বেশি ভ্যাকসিনের ডোজ
    প্রতিদিন | ১৪ মে ২০২২
  • সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: চিন, দক্ষিণ কোরিয়া-সহ বিশ্বের একাধিক দেশে করোনা ভাইরাস নতুন করে চোখ রাঙালেও ভারতের বর্তমান পরিস্থিতি অনেকটাই স্বস্তিজনক। প্রায় প্রতিদিনই একটু একটু করে কমছে সংক্রমণ। নিম্নমুখী অ্যাকটিভ কেসও। পাশাপাশি ICMR জানিয়ে দিয়েছে, আপাতত চতুর্থ ঢেউয়ের আশঙ্কা নেই। তবে সংক্রমণ রুখতে সতর্ক থাকার পরামর্শই দিচ্ছেন বিশেষজ্ঞরা।

    শনিবার স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যাণ মন্ত্রকের (Ministry of Health and Family Welfare) দেওয়া তথ্য অনুযায়ী, গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে করোনা (Coronavirus) আক্রান্ত হয়েছেন ২,৮৫৮ জন। এর মধ্যে শুধু দিল্লিতেই আক্রান্ত ৮৯৯ জন। এদিকে মহারাষ্ট্রে একদিনে সংক্রমিত দেড়শোরও বেশি। দিন কয়েক আগে সক্রিয় করোনা রোগীর সংখ্যা উদ্বেগ বাড়ালেও ফের তা নিম্নমুখী। বর্তমানে দেশে অ্যাকটিভ কেসের সংখ্যা কমে হয়েছে ১৮ হাজার ৯৬। গোটা দেশে অ্য়াকটিভ কেসের হার আপাতত ০.০৪ শতাংশ। এদিকে করোনা আক্রান্ত হয়েছেন নিউজিল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী জসিন্দা আর্ডের্ন। আপাতত পার্লামেন্টে যোগ দেবেন না তিনি বলেই খবর।

    স্বাস্থ্যমন্ত্রকের বুলেটিন অনুযায়ী, ভারতে একদিনে করোনায় প্রাণ হারিয়েছেন ১১ জন। দেশে এখনও পর্যন্ত কোভিডে মোট মৃতের সংখ্যা ৫ লক্ষ ২৪ হাজার ২০১। এদিকে, দক্ষিণ কোরিয়ায় একদিনে প্রাণ হারিয়েছেন ২১ জন।

    সংক্রমণ নিয়ে উদ্বেগের মাঝেও অবশ্য এ দেশে সুস্থতার হার স্বস্তিজনক। পরিসংখ্যান অনুযায়ী, এখনও পর্যন্ত দেশে ৪ কোটি ২৫ লক্ষ ৭৬ হাজার ৮১৫ জন করোনা থেকে মুক্ত হয়েছেন। যার মধ্যে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা থেকে সেরে উঠেছেন ৩,৩৫৫ জন। সুস্থতার হার ৯৮.৭৪ শতাংশ। স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যাণ মন্ত্রকের দেওয়া তথ্য জানাচ্ছে, এখনও পর্যন্ত দেশে ১৯১ কোটি ১৫ লক্ষের বেশি ডোজ করোনার টিকা দেওয়া হয়েছে। এর মধ্যে গতকাল ভ্যাকসিন পেয়েছেন সাড়ে ১৫ লক্ষের বেশি। জোর দেওয়া হচ্ছে বুস্টার ডোজেও। বিধিনিষেধ উঠে গেলেও কোনওভাবেই যাতে সংক্রমণ মাথাচাড়া না দেয়, তার জন্য টিকাকরণের পাশাপাশি করোনা রোগী চিহ্নিত করতে জোর দেওয়া হচ্ছে টেস্টিংয়েও। গতকাল দেশে ৪ লক্ষ ৮৬ হাজার ৯৬৩ জনের নমুনা পরীক্ষা হয়েছে।
  • Link to this news (প্রতিদিন)