• নিজাম প্যালেসে Partha Chatterjee
    এই সময় | ১৮ মে ২০২২
  • মিলল না রক্ষাকবচ। ডিভিশন বেঞ্চে ধাক্কা খেলেন পার্থ চট্টোপাধ্যায় (Partha Chatterjee)। CBI হাজিরা নিয়ে কলকাতা হাইকোর্টের (Calcutta High Court) সিঙ্গল বেঞ্চের রায়কে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে হাইকোর্টের ডিভিশন বেঞ্চে আবেদন করেছিলেন প্রাক্তন শিক্ষামন্ত্রী। কিন্তু, তাঁর আবেদন খারিজ করে দেয় বিচারপতি হরিশ ট্যান্ডনের নেতৃত্বাধীন ডিভিশন বেঞ্চ। এরপরই নিজের নাকতলার বাড়ি থেকে বেরতে দেখা যায় মন্ত্রীকে। এরপরই নির্ধারিত সময়ের ২০ মিনিট আগেই নিজাম প্যালেসে পৌঁছে যান পার্থ চট্টোপাধ্যায়।

    সন্ধ্যা ৬টা নাগাদ কলকাতা হাইকোর্ট পার্থ চট্টোপাধ্যায়কে CBI-এর নিজাম প্যালেসের দফতরে হাজিরা দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছিল। সেইমতো নিজাম প্যালেসে পৌঁছন পার্থ চট্টোপাধ্যায়। SSC নিয়োগ দুর্নীতি মামলায় এখানেই তাঁকে জিজ্ঞাসাবাদ করবে কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থার আধিকারিকরা।

    নিজাম প্যালেসে চলছে জোরা জিজ্ঞাসাবাদ প্রক্রিয়া। একদিকে, SSC কমিটির প্রাক্তন উপদেষ্টা এবং বাকি সদস্যদের জিজ্ঞাসাবাদ করছেন CBI আধিকারিকরা। অন্যদিকে, নিজাম প্যালেসের ১৩ তলায় পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের সঙ্গে কথা বলবেন তদন্তকারী আধিকারিকরা। গোটা নিজাম প্যালেস চত্বরকে এই মুহূর্তে নিরাপত্তার চাদরে মুড়ে ফেলা হয়েছে। জানা গিয়েছে, চার পাতার একটি প্রশ্নপত্রও তৈরি করে রাখা হয়েছে পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের জন্য। তবে কি মুখোমুখি বসিয়ে জেরা করা হবে পার্থ চট্টোপাধ্যায় এবং SSC কমিটির প্রাক্তন উপদেষ্টাকে? কী কী প্রশ্ন করা হতে পারে তাঁদের? এই নিয়ে চলছে কাটাছেঁড়া।

    উল্লেখ্য, এসএসসি-র গ্রুপ সি (SSC Group-c), গ্রুপ ডি (Group-D) কর্মী এবং নবম-দশমে সহকারী শিক্ষক নিয়োগের মামলায় বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়ের (Justice Abhijit Ganguly) নির্দেশকে চ্যালেঞ্জ করে ডিভিশন বেঞ্চে মামলা দায়ের হয়েছিল। সেই মামলার প্রেক্ষিতেই রাজ্যের প্রাক্তন শিক্ষামন্ত্রী পার্ছ চট্টোপাধ্যায়কে CBI দফতরে হাজিরার নির্দেশ দিয়েছিল বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়ের সিঙ্গল বেঞ্চ।

    ''Merit List-এ না থেকেও চাকরি মন্ত্রীর মেয়ের!'' একাদশ-দ্বাদশে Corruption-র অভিযোগে CBI তদন্তের নির্দেশ

    সূত্রের খবর, এদিন বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়ের সিঙ্গল বেঞ্চ জানায়, তদন্তে সহযোগিতা না করলে গ্রেফতার করা হতে পারে প্রাক্তন শিক্ষামন্ত্রীকে। পার্থ চট্টোপাধ্যায়কে সব পদ থেকে অব্যহতি দেওয়া হোক বলেও জানান বিচারপতি। রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড় (West Bengal Governor Jagdeep Dhankhar) এবং মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের (Mamata Banerjee, West Bengal Chief Minister) কাছে এই মর্মে সুপারিশও জানিয়েছেন বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়। এ প্রসঙ্গে কুণাল ঘোষ বলেন, ''আদালতের দায়িত্বে কারও কোনও ভুল হলে অবশ্যই তা চিহ্নিত করা। কিন্তু, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কাকে প্রশাসনের কোন পদে রাখবেন, সেটা বলা বোধহয় আদালতের এক্তিয়ারের মধ্যে পড়ে না। এই বিষয়টা বিবেচনা করে দেখা উচিত।''
  • Link to this news (এই সময়)