• প্রায় ৩ ঘণ্টার ম্যারাথন জেরা, জিজ্ঞাসাবাদ শেষে বেরলেন পার্থ চট্টোপাধ্যায়
    এই সময় | ১৯ মে ২০২২
  • প্রায় সাড়ে ৩ ঘণ্টার ম্যারাথন জেরা শেষে অবশেষে নিজাম প্যালেস থেকে বেরলেন প্রাক্তন শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায় (Partha Chatterjee)।যদিও বাইরে বেরিয়ে কোনও মন্তব্য করেননি। ডিভিশন বেঞ্চ থেকে কোনও রক্ষাকবচ না পেয়ে নির্ধারিত সময়ের ২০ মিনিট আগেই এদিন নিজাম প্যালেসে পৌঁছে যান পার্থ চট্টোপাধ্যায়।

    সূত্রের খবর, সাড়ে তিন ঘণ্টার জেরায় বেশিরভাগ প্রশ্নই এড়িয়ে গিয়েছেন রাজ্যেক প্রাক্তন শিক্ষামন্ত্রী। সিবিআইয়ের বেশিরভাগ প্রশ্নেই তাঁর উত্তর ছিল, ''জানি না, মনে পড়ছে না।'' বলে খবর। SSC-র উপদেষ্টা কমিটির নিয়োগ প্রক্রিয়া সম্পর্কে তাঁর কাছে জানতে চাওয়া হয়। তাঁর পুরো বয়ান রেকর্ড করা হয়েছে বলে খবর। সাড়ে তিন ঘণ্টায় প্রায় দুদফায় তাঁকে জেরা করা হয়েছে জানা গিয়েছে। এদিন নিজাম প্যালেস থেকে বেরিয়ে এরপরে ফের তাঁকে আবারও জেরা করা হবে কিনা সেই বিষয়ে কোনও আলোকপাত করেননি পার্থ চট্টোপাধ্যায়। রাত ৯টা ২৭ নাগাদ তিনি সিবিআই দফতর থেকে বেরিয়ে আসেন। প্রাক্তন শিক্ষামন্ত্রী ছাড়াও এসএসসি উপদেষ্টা কমিটির পাঁচ সদস্যকেও জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়।

    CBI হাজিরা নিয়ে কলকাতা হাইকোর্টের (Calcutta High Court) সিঙ্গল বেঞ্চের রায়কে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে হাইকোর্টের ডিভিশন বেঞ্চে আবেদন করেছিলেন প্রাক্তন শিক্ষামন্ত্রী। কিন্তু, তাঁর আবেদন খারিজ করে দেয় বিচারপতি হরিশ ট্যান্ডনের নেতৃত্বাধীন ডিভিশন বেঞ্চ। এরপরই নিজের নাকতলার বাড়ি থেকে বেরতে দেখা যায় মন্ত্রীকে।

    সন্ধ্যা ৬টা নাগাদ কলকাতা হাইকোর্ট পার্থ চট্টোপাধ্যায়কে CBI-এর নিজাম প্যালেসের দফতরে হাজিরা দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছিল। সেইমতো নিজাম প্যালেসে পৌঁছন প্রাক্তন শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়।

    অন্যদিকে, এখনও প্রকাশ্যে আসেননি রাজ্যের শিক্ষা প্রতিমন্ত্রী পরেশ অধিকারীর (Paresh Adhikary)। জানা গেল পদাতিক এক্সপ্রেসে উঠলেও তিনি মাঝপথে বর্ধমানে নেমে গিয়েছিলেন। সঙ্গে ছিলেন তাঁর মেয়ে অঙ্কিতা অধিকারী (Paresh Adhikary Daughter Ankita Adhikary)। উল্লেখ্য, রাজ্যের শিক্ষক নিয়োগ (Teacher Recruitment) মামলায় বড়সড় দুর্নীতির অভিযোগ প্রকাশ্যে এসেছে। পার্সোনালিটি টেস্টে না বসে, মেধাতালিকায় নাম না থেকেও শিক্ষা প্রতিমন্ত্রী পরেশ অধিকারীর (Paresh Chandra Adhikary) মেয়ে অঙ্কিতা অধিকারী চাকরি পেয়েছেন বলে অভিযোগ উঠেছে। এই ঘটনায় CBI-কে তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন কলকাতা হাইকোর্টের বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়ের ডিভিশন বেঞ্চ। সেই মামলাতেই
  • Link to this news (এই সময়)