• South 24 Parganas: অবশেষে কাঁকড়া ধরতে যাওয়া নিখোঁজ মৎসজীবীর দেহ উদ্ধার
    এই সময় | ১৯ মে ২০২২
  • ২ দিন পর মনি নদী থেকে উদ্ধার হল রায়দিঘীর নিখোঁজ মৎস্যজীবীর দেহ। প্রসঙ্গত, গত সোমবার কনকন দিঘী এলাকায় মনি নদীতে কাঁকড়া ধরতে গিয়ে নিখোঁজ হয়ে যায় অসিত সর্দার নামে এক মৎসজীবি। এর পরেই প্রশাসনের পক্ষ থেকে নদীতে ডুবুরি নামিয়ে শুরু হয় তল্লাশি। অবশেষে বুধবার সকালে নদীতে অসিত সর্দার-এর মৃতদেহ ভাসতে দেখেন স্থানীয়রা। এরপরে খবর দেওয়া হয় রায়দিঘি (Raidighi) থানার পুলিশকে। ঘটনার খবর পেয়ে রায়দিঘি থানার পুলিশ ঘটনাস্থল পৌঁছয়। মৃতদেহটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য পাঠায় পুলিশ।

    রায়দিঘি (Raididhi) বিধানসভার দক্ষিণ কনকন দিঘী মুন্ডা পাড়া এলাকার বাসীন্দা ছিলন অসিত সর্দার(৩০)। গত সোমবার তার স্ত্রী আদরি সর্দারকে নিয়ে মনি নদীতে কাঁকড়া ধরতে গিয়েছিলেন তিনি।

    স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, রবিবার রায়দিঘি (Raidighi) দক্ষিণ বিধানসভার স্থানীয় বাসীন্দা অসিত সর্দার মনি নদীতে কাঁকড়া ধরতে যায়। তাঁর স্ত্রী আদরি সর্দারও অসিতের সঙ্গে কাঁকড়া ধরতে গিয়েছিলেন। অসিত সর্দার জাল নিয়ে মাছ ধরতে ব্যস্ত ছিল মনি নদীতে ( Mani river)। স্ত্রী আদরি চড়ের উপরেই বসেছিলেন। বেশ কিছু সময় অতিবাহিত হওয়ার পর স্বামী জাল নিয়ে নদী থেকে উপরে আসছে না দেখে সন্দেহ হয় তাঁর। এরপরেই খোঁজাখুঁজি শুরু করে দেয় আদরি। বেশ কিছুক্ষন পর চিৎকার চেঁচামেচি করে অন্যান্য সঙ্গী মৎস্যজীবীদের জানায় বিষয়টি। সঙ্গী মৎস্যজীবীরা খোঁজ শুরু করে অসিত সর্দারের। জলে অসিতকে না পাওয়ার পর খবর দেওয়া হয় রায়দিঘী থানার পুলিশকে। রাত থেকেই অসিত সর্দারের খোঁজে নদীতে তল্লাশি শুরু করে পুলিশ।

    দিঘী মুন্ডা পাড়া এলাকার শতাধিক মৎস্যজীবী মনি নদীতে নিয়মিত মিন ও কাঁকড়া ধরতে যায়। বনকর্মীরা জানিয়েছেন, অনেক সময়েই নিষিদ্ধ এলাকায় মাছ-কাঁকড়া ধরতে গিয়ে বিপদে পড়েছেন মৎস্যজীবীরা। সেইসব জায়গা চিহ্নিত করে বহুবার বিভিন্ন সতর্কতামূলক প্রচার চালানো হয়েছে বনদফতরের তরফে। কিন্তু এক শ্রেণির মৎস্যজীবীর কোনও কিছু তোয়াক্কা না করেই প্রাণের ঝুঁকি নিয়ে ওইসব এলাকাতেই যান। এক্ষেত্রেও তেমন কিছু হয়েছিল কিনা তা খতিয়ে দেখছেন বনকর্মীরা। এদিনের মৎসজীবীর দেহ উদ্ধারের ঘটনায় পুনরায় মৎসজীবীদের সচেতনতর অভাবের বিষয়টি নিয়ে প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে। বারংবার প্রচারের সত্ত্বেও এরকম ঘটনায় চিন্তায় জেলা প্রশাসন।
  • Link to this news (এই সময়)