• প্রেমের প্রস্তাব খারিজ করায় তরুণীর শ্লীলতাহানি! আত্মঘাতী কলেজছাত্রী
    এই সময় | ২৫ জুন ২০২২
  • প্রেমের প্রস্তাব দিয়েছিল প্রতিবেশী যুবক। সেই প্রস্তাব নাকচ করে দিলেও মানতে রাজি হয়নি রোমিও। কলেজ থেকে টিউশন যাওয়ার পথে সর্বদা উত্ত্যক্ত করত ওই যুবক। সম্প্রতি ওই যুবক তরুণীর পথ আটকে তাঁর শ্লীলতাহানি করে বলে অভিযোগ। তরুণীর জামা-কাপড় ছিড়ে দিয়ে তাঁর মোবাইল ফোনও কেড়ে নেয় বলে অভিযোগ। মাঝ রাস্তায় এই অপমাণের পর মানসিকভাবে অবসাদগ্রস্ত হয়ে পড়েছিলেন। অবশেষে অপমাণ সহ্য করতে না পেরে গলায় দড়ি দিয়ে আত্মঘাতী হলেন কলেজ ছাত্রী। চাঞ্চল্যকর ঘটনাটি ঘটেছে উত্তর দিনাজপুরের (North Dinajpur) কালিয়াগঞ্জ থানার কুনোর এলাকায়। ঘটনায় অভিযুক্ত যুবকের শাস্তির দাবি তুলে পুলিশের দ্বারস্থ হয়েছেন তরুণীর পরিবার।

    পুলিশ জানায়, কুনোর এলাকার বাসিন্দা মৃত তরুণী কালিয়াগঞ্জ কলেজের (Kaliyaganj College) দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্রী ছিলেন। কালিয়াগঞ্জ থানার কুনোর এলাকারই বাসিন্দা অভিযুক্ত যুবকের নাম সুজয় সরকার। গত সোমবার তরুণী একাকী কলেজ যাওয়ার সময় সুজয় তাঁর পথ আটকে ধরে তাঁর শ্লীলতাহানি করে বলে অভিযোগ। সুজয় সরকারের বিরুদ্ধে কালিয়াগঞ্জ থানায় অভিযোগ দায়ের করেছে মৃত তরুণীর পরিবার। গোটা ঘটনার তদন্ত শুরু হয়েছে।

    স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, কুনোর এলাকার ওই তরুণীরে প্রেমের প্রস্তাব দিয়েছিল প্রতিবেশী যুবক সুজয় সরকার। কিন্তু সেই প্রস্তাব খারিজ করে দেন তরুণী। তারপর থেকেই সুজয় তাঁকে নানাভাবে উত্ত্যক্ত করত বলে অভিযোগ। তারপর গত সোমবার তরুণী একাকী কালিয়াগঞ্জ কলেজে যাচ্ছিলেন। কুনোর বাসস্ট্যান্ডে টোটোয় চাপতে গেলে সুজয় সরকার তাঁর পথ আটকে মারধর করে এবং মোবাইল ফোনটি কেড়ে নিয়ে ফেলে ভেঙে দেয় বলে অভিযোগ। তরুণীর জামা-কাপড়ও ছিড়ে দেয় বলে অভিযোগ মৃতের পরিবারের অভিযোগ। খবর পেয়ে তরুণীর বাড়ির লোকেরা ঘটনাস্থলে গিয়ে তাঁকে উদ্ধার করে বাড়িতে নিয়ে যান। সেই ঘটনার পরই মানসিকভাবে অবসাদগ্রস্ত হয়ে পড়েন তরুণী। তারপর তিনি নিজের বাড়িতেই গলায় দড়ি দিয়ে আত্মঘাতী হন।

    তরুণীর মামা দীনু বর্মন বলেন, "ওই যুবক আমার ভাগনিকে উত্ত্যক্ত করত। আমরা ওই যুবকের বাড়িতেও বিষয়টি জানিয়েছিলাম এবং সাবধান হতে বলেছিলাম। কিন্তু কিছু হয়নি। গত সোমবার সুজয় ভাগনির পথ আটকে ধরে তাঁর শ্লীলতাহানি করে। সেই ঘটনার জন্যই অবসাদ থেকে আত্মহত্যা করে সে।"

    Raiganj: কটূক্তি, মারধর! সাংবাদিকের মাথা ফাটনোর অভিযোগ উঠল পুলিশকর্মীর বিরুদ্ধে

    বৃহস্পতিবার রাতে গলায় দড়ি দিয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করেন তরুণী। ঘটনাটি দেখতে পেয়ে তাঁর বাড়ির লোকজন তরুণীরে উদ্ধার করে প্রথমে কালিয়াগঞ্জ স্টেট জেনারেল হাসপাতালে (Kaliyaganj State General Hospital) ও পরে রায়গঞ্জ মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালে (Raiganj Medical College & Hospital) ভর্তি করান। কিন্তু শেষরক্ষা হয়নি। রায়গঞ্জ মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থাতেই শুক্রবার রাতে মৃত্যু হয় তাঁর। এই ঘটনার পরই কালিয়াগঞ্জ থানায় অভিযুক্ত যুবকের বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন মৃতের পরিবার। যদিও শনিবার বিকেল পর্যন্ত অভিযুক্ত যুবক আটক বা গ্রেফতার হয়নি। ঘটনার তদন্ত হচ্ছে বলে পুলিশ জানিয়েছে।
  • Link to this news (এই সময়)