• "কার্নিশ থেকে পড়ার পর দুই-আড়াই ঘণ্টা পড়ে ছিলেন ওই ব্যক্তি": সুকান্ত
    এই সময় | ২৬ জুন ২০২২
  • মল্লিক বাজারেহাসপাতালের (Mullick Bazar Hospital) কার্নিশ থেকে রোগী পড়ে যাওয়ার ঘটনায় রাজ্য সরকারের বিরুদ্ধেই অভিযোগের আঙুল তুললেন BJP-র রাজ্য সভাপতি সুকান্ত মজুমদার (Sukanta Majumdar)। হাসপাতালের নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিয়ে প্রশ্ন তুলে কটাক্ষের সুরে তিনি বলেন, "পুলিশ প্রশাসন রাজ্যে সম্পূর্ণভাবে নিষ্ক্রিয়। আজ ওদের কাজ শুধু কালীঘাটের দুটি বাড়ির সামনে পাহারা দেওয়া আর BJP-র নেতা-কর্মীদের উপর মামলা দেওয়া আর তাঁদের আটকানো।" মল্লিক বাজারে হাসপাতালের (Mullick Bazar Hospital) কার্নিশ থেকে সুজিত অধিকারী পড়ে যাওয়ার অনেক পরে তাঁর চিকিৎসা শুরু হয়েছে বলেও অভিযোগ তোলেন সুকান্ত মজুমদার। অভিযোগের সুরে তিনি বলেন, "ওই ব্যক্তি প্রায় দুই-আড়াই ঘণ্টা পড়ে ছিল, আমি যেটা শুনেছি। পুলিশের কোনও হেলদোল নেই। প্রশাসনের কোনও হেলদোল নেই। এগিয়ে বাংলার প্রশাসন। এটাই করে আড়াই ঘণ্টা দেরিতে চলছে। এটা যদি গুজরাটের প্রশাসন হত, সঙ্গে সঙ্গে কাজ হত।"

    এদিন পূর্ব মেদিনীপুর (East Medinijpur) জেলার পাঁশকুড়া রেল স্টেশন সংলগ্ন এলাকায় BJP-র এক দলীয় কর্মসূচিতে যোগ দিতে আসেন দলের রাজ্য সভাপতি সুকান্ত মজুমদার। এদিন তাঁর সঙ্গে একই মঞ্চে দেখা যায় BJP-র সর্বভারতীয় সহ সভাপতি দিলীপ ঘোষ (Dilip Ghosh) এবং রাজ্যের বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারীকে (Suvendu Adhikari)। তিনজনেই একযোগে এদিন রাজ্য সরকারের বিরুদ্ধে সুর চড়ান।

    এদিন প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনায় দুর্নীতির অভিযোগ তুলে শাসকদলকে কড়া ভাষায় আক্রমণ করেন বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী (Suvendu Adhikari)। একই সুর শোনা যায় সুকান্ত মজুমদারের গলাতেও। রাজ্য সরকার আবাস যোজনায় ১০০ শতাংশ টাকা না দিয়েও বাংলা আবাস যোজনা নাম দেওয়া হচ্ছে বলে সুর চড়ান তিনি। আবার রাজ্যে শিল্পের পরিবেশ নেই বলেও তোপ দাগেন সুকান্ত মজুমদার। তিনি বলেন, "যে সমস্ত শিল্পপতিরা সম্মান নিয়ে কাজ করতে চান, তাঁরা অন্য রাজ্যে চলে গিয়েছেন। হাজার-হাজার কলকারখানা বন্ধ হয়ে গিয়েছে। সরকারি হিসাবে ৪০ লক্ষ মানুষ পরিযায়ী শ্রমিক হিসাবে কাজ করছেন।"

    একুশে সংখ্যাগরিষ্ঠতা নিয়ে তৃণমূল ক্ষমতায় এলেও সরকার বেশিদিন থাকবে না বলেও এদিন পাঁশকুড়ার (Panskura) সভামঞ্চ থেকে 'ভবিষ্যদ্বাণী' করেন BJP-র রাজ্য সভাপতি (Sukanta Majumdar)। তাঁর দাবি, "২০২৪-এ বিধানসভা ও লোকসভা এক সঙ্গে হবে। তৃণমূল দলের অবস্থা ভালো নয়। এই দল বেশিদিন থাকবে না, ভেঙে যাবে।"

    Suvendu Adhikari-র গ্রেফতারির দাবিতে সোমবার পথে নামছে TMC, মঙ্গলে রাজ্যপাল সকাশ

    এদিন পাঁশকুড়া রেল স্টেশন সংলগ্ন এলাকায় BJP-র কর্মসূচিতে সুকান্ত মজুমদার, শুভেন্দু অধিকারী, দিলীপ ঘোষ সহ স্থানীয় নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। কর্মী-সমর্থকদের ভিড়ও ছিল চোখে পড়ার মতো।
  • Link to this news (এই সময়)