• অণ্ডাল থানায় 'মিট ইয়োর অফিসার', এলাকাবাসীর অভিযোগ শুনলেন সিপি
    এই সময় | ২৬ জুন ২০২২
  • ‘Meet Your Officer’৷ এই অনুষ্ঠানের মধ্যে দিয়ে পুলিশের পদস্থ কর্তাদের সঙ্গে সরাসরি কথা বলতে পারছেন সাধারণ মানুষ৷ শনিবার এলাকার মানুষের অভাব, অভিযোগ শুনতে অণ্ডাল থানায় এলেন আসানসোল-দুর্গাপুর পুলিশ কমিশনারেটের (Asansol-Durgapur Police Comissionarate) কমিশনার IPS সুধীর কুমার নীলাকান্তাম। রাজ্যের প্রায় সব থানাতেই চলছে পুলিশের একেবারে সাধারণ মানুষের কাছে পৌঁছানোর প্রক্রিয়া। পুলিশ এই প্রক্রিয়ার নাম দিয়েছেন 'মিট ইওর অফিসার'। এই অনুষ্ঠানের মাধ্যমে সাধারণ মানুষ একেবারে পুলিশের ঊর্ধতন অফিসারের কাছে পৌঁছতে পারছেন। পুলিশের এই পদক্ষেপে খুশি সাধারণ মানুষ।

    এদিনের এই অনুষ্ঠানে এলাকার বেশ কয়েকজন কৃতী ছাত্র-ছাত্রীকে সংবর্ধিত করা হল পুলিশের তরফে৷ যারা এবারের মাধ্যমিকে ভালো ফল করেছে, তাদের শারীরিক অক্ষমতা সত্ত্বেও, তাদের মনোবল বাড়ানোর সঙ্গে সঙ্গে এলাকার কয়েকজন উঠতি খেলোয়াড়কে খেলার সরঞ্জাম দেওয়া হল আসানসোল দুর্গাপুর পুলিশের তরফে। এই অনুষ্ঠানে পুলিশ কমিশনার ছাড়াও ছিলেন থানার OC শান্তনু অধিকারী, উখরা ফাঁড়ির IC নাসরিন সুলতানা ও অন্যান্য অফিসাররা।

    পুলিশের হাত থেকে সংবর্ধনা পেয়ে খুশি এবারের মাধ্যমিকে উত্তীর্ণ শারীরিকভাবে অক্ষম হেমন্ত কুমার মাহাত৷ সে জানায়, খুব মন দিয়ে পড়াশোনা করে সে৷ শারীরিকভাবে অক্ষম হলেও, তাঁর লক্ষ্য অনেক দূর এগিয়ে যাওয়ার৷ আগামী দিনে কম্পিউটার ইঞ্জিনিয়ার হতে চায়৷ পুলিশ তাকে আরও মন দিয়ে পড়াশোনা করতে বলেছে বলেও জানায় সে এবং তার জন্য একটা ট্রাই সাইকেল দেওয়ার ব্যবস্থাও তাঁরা করবেন বলে জানিয়েছেন।

    হেমন্তের বাবা ব্রহ্মদেব মাহাত বলেন, ‘‘আমার ছেলের মাথা ভালো কিন্তু শরীর কাজ করে না৷ জন্ম থেকেই অর্থোপেডিক সমস্যা রয়েছে৷ বোর্ডের পরীক্ষায় ভালো ফল করেছে৷ ওর পড়াশোনার ব্যাপারেই এদিন কথা বললেন আধিকারিকরা৷ বোর্ডের পরীক্ষা কেমন হয়েছে৷ ভবিষ্যতে কী করতে চায়৷ পড়াশোনায় কেমন৷ এমনকী হুইল চেয়ার আছে কিনা, তাও জানতে চান৷ আমি হুইল চেয়ার নেই বলাতেই ওনারা বলেন, এক সপ্তাহের মধ্যে হুইল চেয়ার পেয়ে যাবেন৷’’

    পুলিশের এত বড় অফিসারের সঙ্গে কথা বলে ভীষণ ভালো লেগেছে বলেও জানা তিনি৷ তাঁদের আত্মবিশ্বাসও বাড়ানোর কাজ করেছেন তাঁরা৷ এতে খুশি ওই অনুষ্ঠানে আগত সকল অভিভাবক এবং ছাত্রছাত্রীরা৷ পুলিশের পদস্থ কর্তাদের সঙ্গে এভাবে সরাসরি কথা বলার ব্যাপারে তাঁরা যেখানে ভাবতেই পারেন না, সেখানে এদিন তাঁদের সঙ্গে কথা বলা দারুণ খুশি তাঁরা৷
  • Link to this news (এই সময়)